মেহেরপুরের আমঝুপি ময়ামারী গ্রামে লিবিয়া প্রবাসী সড়ক দুঘটনায় নিহত

 

আমঝুপি প্রতিনিধি: সোনার হরিণ খুঁজতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন দু সন্তানের জনক ইসরাফিল। এলাকাসূত্রে জানা গেছে, মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি ইউনিয়নের ময়ামারী গ্রামের আনসার আলীর ছেলে ইসরাফিল (৩৩) গত দু বছর আগে স্থানীয় এক আদম ব্যাপারির মাধ্যমে জমি জায়গা বিক্রয় করে চার লাখ টাকা জমা দিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের মিশরে একটি কোম্পানিতে চাকরি নেন। মিশরে তিনি যে বেতন ভাতা পেতেন তার সিংহভাগ থাকা খাওয়া বাবদ ব্যয় হয়ে যেতো। ফলে তিনি তার পরিবারের জন্য বড় অঙ্কের টাকা প্রেরণ করতে পারতেন না। তাই সে মিশর থেকে লিবিয়াতে প্রবেশ করে লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলী শহরে একটি সুতা কোম্পানিতে কর্মরত ছিলেন। তিনি চলতি বছরের জুন মাসে লিবিয়াতে চাকরি নেন। কিন্তু সেখানে তার বেতন ভাতা বেশি হলেও ভাগ্য তার শেষ নিয়তির দিকে পৌঁছাতে দেয়নি। ইসরাফিল গত ২০ আগস্ট তার কর্মস্থলে যেতে এক দুর্ঘটনায় আহত হলে পরের দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় লিবিয়াতেই মারা যান। চার ভাই বোনের মধ্যে তিনি মেজ। বিয়ে হয়েছিলো আমঝুপির ইসলামনগর গ্রামের হাসিবুর রহমানের মেয়ে বিউটির সাথে। তাদের দু সন্তান, প্রথম ছেলে ইসমাইল গ্রামের স্কুলে ৫ম শ্রেণিতে পড়ে আর মেয়ে ইতি একই স্কুলের ১ম শ্রেণির ছাত্রী। গতকাল ঢাকায় লাশ পৌঁছেছে বলে তার পারিবারিকসূত্রে জানা গেছে। রাতে লাশ তার নিজগ্রামে জানাজার নামাজ শেষে এলাকার কবর স্থানে দাফন করা হয় বলে জানিয়েছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

Leave a comment

Your email address will not be published.