মুজিবের হত্যাকারীরা হাসিনার মন্ত্রীসভায় : তারেক রহমান

স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারপারসন তারেক রহমান বলেছেন, যারা শেখ মুজিবুররহমানের হত্যার ক্ষেত্র তৈরি করেছিলেন তারাই এখন শেখ হাসিনার মন্ত্রীসভায়রয়েছেন। একইসাথে তিনি বঙ্গবন্ধু পরিবারকে শুধু ‘খুনি পরিবার’ নয়, দেশেরজন্য ‘অভিশাপ’ বলেও মন্তব্য করেন।

গতকাল রোববার লন্ডনের কুইন মেরিইউনিভারসিটিতে সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ ইউকে আয়োজিত ‘স্ট্র্যাটেজি ফর এপ্রসপারাস বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে তারেক রহমান এসব কথা বলেন। সেমিনারেসভাপতিত্ব করেন কার্ডিফ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডক্টর কেএমএ মালিক।তারেকের এই বক্তব্য ইউটিউবে রয়েছে। সেখান থেকে তার বক্তব্য নেয়া হয়েছে।

তারেকরহমান বলেন, ‘১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট একটি ঘটনা ঘটেছিলো বাংলাদেশের ইতিহাসে।একটি দুঃখজনক ঘটনা। একটি হত্যাকাণ্ড ঘটেছিলো। যেকোনো হত্যাকাণ্ড অবশ্যইনিন্দনীয়। আজ আমরা দেখতে পাই কিছু সংখ্যক লোক নিজেদের স্বার্থ হাসিলেরজন্য, নিজেদের স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য এবং বর্তমানে বাংলাদেশে যে অবৈধসরকারটি আছে, সেই অবৈধ সকাররের কিছু অবৈধ ব্যক্তি, বিশেষ করে সেইসবব্যক্তিদের নেতৃত্বে আছে অবৈধ যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘সো কল্ড’ প্রধানমন্ত্রী সেও এটির নেতৃত্বে আছেএবং তারা কতোগুলো মিথ্যা কথা মিথ্যাতথ্য দিয়ে জনসাধারণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।’

বিএনপির এই নেতা আরও বলেন, ১৫ আগস্টের ঘটনাকে কাছে থেকে দেখেছেন এমন বহুমানুষ দেশের বেঁচে আছেন। ১৫ আগস্টের ঘটনার প্রেক্ষাপটগুলো কীভাবে তৈরিহয়েছে কারা কারা সেই ঘটনাগুলো তৈরির জন্য অবদান রেখেছে। কারা শেখ মুজিবেরহত্যার ক্ষেত্র প্রস্তত করেছিলো সেই প্রশ্ন রাখেন তারেক।তারেক রহমান আরও বলেন, ‘১৫আগস্ট শেখ মুজিবের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ারকথা। বিশ্ববিদ্যালয়ে যাতে শেখ মুজিব সেফলি (নিরাপদে) যেতে না পারে, তারজন্য তাদের তত্কালীণ একটি রাজনৈতিক দল তাদের কয়েকজন সদস্যকে দিয়ে একটিআনস্টেবল (অস্থিতিশীল) পরিবেশ সৃষ্টি করার চেষ্টা করেছিলো। আমাদের আজকেদেখতে হবে শেখ হাসিনার আশেপাশে সেই লোকগুলোকে, যারা সেই সময় সেই অবস্থারসৃষ্টি করেছিলো। বর্তমান শেখ হাসিনার অবৈধ সরকারে, তার দলের মধ্যে কিছুসংখ্যক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব আছে। তাদের মধ্যে কেউ কেউ সেদিন বলেছিলো, ‘শেখমুজিবের চামড়া দিয়ে ডুগডুগি বানানো হবে।’শুধু তাই নয়, বিভিন্ন বিদেশিমিডিয়াতে শেখ হাসিনার আশেপাশে বর্তমানে উপস্থিত এমন অনেক রাজনৈতিকব্যক্তিত্ব যারা বিদেশি মিডিয়ার সামনে বলেছিলো, ‘শেখ মুজিব হচ্ছেস্বৈরাচার।’এসব ব্যক্তিগুলো এখন শেখ হাসিনার আশেপাশে ঘোরাফেরা করছে।’

তারেক আরও বলেন, ‘১৪ আগস্ট রাতে শেখ মুজিব নিজেই তিনটি ট্যাংক নামানোরনির্দেশ দিয়েছিলো। এটি সম্প্রতি বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা কাদের সিদ্দিকির একটিলেখা থেকেবেরিয়ে এসেছে। শেখ মুজিব নিজে কাদের সিদ্দিকীকে বলেছিলেন, এইইনুদের যে চক্রান্ত, ইনুরা যা করতে চাচ্ছে তত্কালীন জাসদ যা করতে চাচ্ছেশেখ মুজিবের বিরুদ্ধে সেই ঘটনাগুলো থেকে নিজেকে  রক্ষার  জন্য শেখ মুজিবতিনটি ট্যাংক নামানোর অর্ডার দিয়েছিলো।’

বিএনপির সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান বলেন, ‘শেখ মুজিব যেই মানুষগুলোর কারণেবাধ্য হয়ে সেদিন ট্যাঙ্ক নামানোর পারমিশন দিয়েছিলো, যেই লোকগুলো সেইপরিস্থিতি শেখ মুজিবের বিরুদ্ধে তৈরি করেছিলো সেই ব্যক্তিগুলোই এখন শেখহাসিনার আশপাশে ঘুরাফেরা করে। তাদের মধ্যে অনেকেই এখন শেখ হাসিনার অত্যন্তপ্রিয় ও আস্থাভাজন ব্যক্তি।’তারেক জিয়া বলেন, ‘মুজিব হত্যাকাণ্ডের প্রেক্ষাপট যারা তৈরি করেছিলেন, তারাই এখন হাসিনার দলে ও অবৈধ সরকারে। তাহলে তো বলাই যায়, আওয়ামী লীগ আসলেকুলাঙ্গারদেরই দল।’

তারেক অভিযোগ করেন, এই কুলাঙ্গারেরাই এখন নিজেদের অপকর্ম আড়াল করতে জিয়াপরিবারকে টার্গেট করছে। বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি ও স্বাধীনতার ঘোষকজিয়াউর রহমান এবং তার পরিবার সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্তকরছেন।

বঙ্গবন্ধু হত্যায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের হাতছিলো- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তারেক জিয়া এসবকথা বলেন। গত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ১০ম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে রাজধানীরবঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে দেয়া ভাষণে ওই মন্তব্য করেনপ্রধানমন্ত্রী।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *