মুজিবনগরে অবৈধ গরুর হাট :রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার!

 

স্টাফ রিপোর্টার: মেহেরপুর মুজিবনগর উপজেলার কেদারগঞ্জে গরুর হাট বসানো হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের নির্ধারিত হাটের পাশে অবৈধ হাট বসিয়ে চলছে কেনাবেচা। মোনাখালী ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মোল্লা নিজ জমিতে ওই হাট বসিয়েছেন। প্রতি হাটে লাখ লাখ টাকা কেনাবেচা হলেও সরকারি কোষাগারে পড়ছে না কোনো অর্থ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,কেদারগঞ্জ হাটের দক্ষিণে ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মোল্লার নিজস্ব সম্পত্তিতে সম্প্রতি গরুর হাট বসিয়েছেন। সপ্তার রোববার বিপুল পরিমাণ গরু কেনাবেচা হয়। সরকারি হাটের জায়গাতেও হাট সম্প্রসারিত হয়। কিন্তু সরকার অনুমোদিত হাট না হওয়ায় কোনো ইজারা দেননা হাটমালিক শফিকুল ইসলাম মোল্লা। তবে তিনি বিক্রি হওয়া গরু প্রতি হাট খরচ বাবদ নেন ৩শ’টাকা। এতে তিনি ব্যক্তিগতভাবে লাভবান হলেও সরকার হারাচ্ছে লাখ লাখ টাকা রাজস্ব। এ বিষয়ে জানতে চেয়ে শফিকুল ইসলাম মোল্লার মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার অরুন কুমার মণ্ডল জানান,কেদারগঞ্জ বাজারে উপজেলা প্রশাসনের হাট প্রতি বছর ইজারা দেয়া হয়। ওই হাটের পাশে ব্যক্তি উদ্যোগে গরুর হাট বসানো সম্পূর্ণ অবৈধ। তাই হাটের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published.