মাথার উকুনমারা বিষে বিপত্তি : অসতর্কতায় মুখে দিয়ে মৃত্যুশয্যায় শিশু

 

স্টাফ রিপোর্টার: মাথার উকুন মারার বিষ নারকেল তেলে মিশিয়ে চৌকির নিচে রেখে বিপদ ডেকে এনেছেন চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের বড় শলুয়ার জাহিদুল ইসলামের পরিবারের সদস্যরা। গতকাল বুধবার সকালে জাহিদুলের ১৪ মাস বয়সী শিশুকন্যা জান্নাতুল তা মুখে দিয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করানো হয়েছে।

জানা গেছে, শিশু জান্নাতুলের ফুফু হাজেরা খাতুন মাথার উকুন মারার জন্য দানাদার বিষ নারকেল তেলের সাথে মেশান। তার কিছু অংশ মাথায় দিয়ে বাকিটা রেখে দেন চৌকির নিচে। শিশু জান্নাতুল একা হামাগুড়ি দিয়ে খেলতে গিয়ে হাতের কাছে ওই বিষযুক্ত নারকেল তেল মুখে দিয়ে লালা ঝরাতে থাকে। বমি করতে করতে কাবু হয়ে উঠলে পরিবারের সদস্যরা উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়।

দীর্ঘদিন ধরেই বাড়ির বড়দের অসতর্কতার কারণে একের পর এক শিশু মৃত্যুঝুঁকির মধ্যে পড়ছে। উকুন মারার বিষযুক্ত নারকেল তেল দিয়ে ভাত মাখিয়ে খেয়ে সরোজগঞ্জের এক দরিদ্র মায়ের বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী কিশোর ছেলের মৃত্যুও ঘটে। ইঁদুর মারা বিষ মুখে দিয়েও শিশুর মৃত্যুর উদাহরণ রয়েছে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায়। একের পর এক মৃত্যু, একের পর এক মৃত্যুঝুঁকির মধ্যে পড়লেও শিশুদের রক্ষায় বড়রা প্রয়োজনীয় সতর্ক হচ্ছে না। এলাকার সচেতন অনেকেই এ মন্তব্য করে বলেছেন, গ্রামপর্যায়ে সচেতনতামূলক পদক্ষেপ প্রয়োজন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *