মহেশপুরে এক গৃহবধূকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ

 

মহেশপুর প্রতিনিধি: মহেশপুরে এক গৃহবধূকে নির্যাতন করে হত্যা করে লাশ গোপনে মাটি দেয়ার সময় তথ্যটি ফাঁস হয়ে গেলে গত সোমবার সন্ধ্যায় লাশ উদ্ধার করেছে মহেশপুর থানা পুলিশ।

মহেশপুর থানা ও এলাকাবাসীসূত্রে প্রকাশ, মহেশপুর উপজেলার যাদপুর ইউনিয়নের কৃঞ্চপুর গ্রামের সামাউলের সাথে ১২/১৩ বছর পূর্বে একই ইউনিয়নের কানাইডাঙ্গা গ্রামের সুলতান আহম্মেদের মেয়ে রেহেনার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তারা উভয় সাভারের একটি গার্মেন্টেসে চাকরিরত ছিলো। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি সামাউল তার স্ত্রীকে অমানুষিক নির্যাতন করে। একপর্যায় সে মারা গেলে কানাইডাঙ্গা গ্রামে মেয়ের পরিবারের কাছে মোবাইলে আত্মহত্যা করেছে বলে খবর দেয়। গত সোমবার ঢাকা থেকে লাশ বাড়িতে নিয়ে দাফনের আয়োজন করলে রেহেনার মেয়ে হত্যার তথ্য ফাঁস করে দেয় এবং পুলিশ মেয়ের পিতা সুলতান আহম্মেদের অভিযোগের ভিত্তিতে লাশ উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালমর্গে পাঠায়।

এ বিষয়ে থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত এসআই খবির উদ্দিন জানান, মেয়ের পিতা নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ করেছে। সুরতহাল রিপোর্ট করতে গিয়ে তার শরীরে অসংখ্য নির্যাতনের চিহ্ন পাওয়া গেছে। পুলিশ আরো জানায়, সামাউল পলাতক রয়েছে, পুলিশের প্রাথমিক ধারণা করছে তাকে নির্যাতন করেই হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলেই পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published.