মহেশপুরের শাদা পোশাকে পুলিশ পরিচয়ে অভিযান : গ্রামবাসীর প্রতিরোধের মুখে গুলিবর্ষণ : হ্যান্ডকাপসহ আসামির পলায়ন

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার নাটিমা গ্রামে গতকাল বুধবার রাতে শাদা পোশাকে পুলিশ পরিচয়ে আসামি ধরতে গিয়ে গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় হ্যান্ডকাপ পরা অবস্থায় সাইফুল ইসলাম নামে এক যুবক পালিয়ে গেছে।

তবে মহেশপুর থানার ওসি আহম্মদ কবীর এ ঘটনা অস্বীকার করে বলেছেন, ঘটনার সময় মহেশপুর থানার কোনো পুলিশ সদস্য সেখানে যায়নি। হয়তো অন্য কোনো বাহিনীর সদস্যরা যেতে পারে।

প্রত্যক্ষদর্শীসূত্রে জানা গেছে, গতকাল বুধবার রাত ৮টার দিকে চারজনের শাদা পোশাকের লোক নিজেদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে নাটিমা বাজারে যান। সেখানে তারা যুবদল নেতা শুকুর আলী ও আজাদসহ অন্যান্যদের খুঁজতে থাকেন। একপর্যায়ে যুবদল নেতা শুকুর আলীর ভাই সাইফুলকে পেয়ে তার হাতে হ্যান্ডকাপ পরিয়ে দেন। ইতোমধ্যে গ্রামবাসী জড়ো হয়ে তাদের পরিচয় ও আটকের বিষয়ে জানতে চায়। গ্রামকবাসীর হইচইয়ের মধ্যে সাইফুল হ্যান্ডকাপ পরা অবস্থায় পালিয়ে যান। বেগতিক দেখে আসামি ধরতে যাওয়া ব্যক্তিরা কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে। পরে আরও কিছু মোটরসাইকেলে করে লোক নাটিমা বাজারে আসা শাদা পোশাকের লোকদের নিয়ে যায়।

বিষয়টি নিয়ে নাটিমা গ্রামের যুবদল নেতা শুকুর আলী জানান, রাজনীতি করার কারণে তাদের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা থাকতে পারে। সেই মামলায় হয়তো তাদের ধরতে এসেছিলো। স্থানীয় গ্রামবাসীর অভিযোগ সাইফুল নামে মহেশপুর থানার এক দারোগা শাদা পোশাকে নাটিমা গ্রামে এসেছিলেন।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজহাবার আলী শেখ ও কোটচাঁদপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল করিম বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখবেন বলে জানান।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.