মদ্যপাবস্থায় ট্রাক চালাতে গিয়ে বিপত্তি : গুঁড়িয়ে গেছে রেলবাজারের হার্ডওয়ারের দোকান

 

স্টাফ রিপোর্টার: মদ্যপাবস্থায়ট্রাক চালাতে গিয়ে এক হেলপার গুঁড়িয়ে দিয়েছে দুটি মোটরসাইকেলসহ রেলবাজারের একটি হার্ডওয়ার দোকান। গতকাল রোববার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছেন, অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছে সড়কের পাশে বসে গেঞ্জি বিক্রেতাসহ হাডওয়ার দোকানি ফারুক। বৈদ্যুতিক খুঁটি প্রাণ রক্ষায় সহায়ক হয়েছে। ঘটনার পর চালকের আসনে বসা হেলপার সাতগাড়ির আল আমিন ও সাথে থাকা আক্তার সটকে পড়ে। দুজনই মদ্যপাবস্থায়ছিলো।

স্থানীয়রা বলেছে, এসএল এন্টারপ্রাইজের দশ চাকার একটি ট্রাক (চুয়াডাঙ্গা ট- ১১- ০৩৮৮) রানা নামের একজন চালক হিসেবে নিযুক্ত। হেলপার হিসেবে কাজ করে আল আমিন। সে এক সময় পাইপ লাইনের কাজ করতো। সম্প্রতি ট্রাকের হেলপার হয়। গতকাল দুপুরে সে কলেজ রোড থেকে ট্রাকটি নেয়। ট্রাক চালিয়ে মাছপট্টি স্টেশন হয়ে রেলবাজারে যায়। রেলবাজারের আলিয়া মাদরাসার অদূরবর্তী পলাশ হার্ডওয়ারের দিকে ছুটে যায় ট্রাকটি। সামনেই ছিলো গেঞ্জি দোকানি সোহেল। ট্রাকটি ধেয়ে আসছে দেখে দোকানি সোহেল সটকে পড়ে। ক্রেতা…. আহত হন। তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। ট্রাকটি পলাশ হার্ডওয়ারের সামনে থাকা দুটি মোটরসাইকের গুঁড়িয়ে দোকানে ধাক্কা দেয়। বৈদ্যুতিক খুঁটির কারণে ট্রাকটির গতি কিছুটা থেমে যাওয়ায় হার্ডওয়ার দোকানি ফারুকসহ কয়েকজন প্রাণে রক্ষা পান। মোটরসাইকেল দুটির একটি রেলপাড়ার কাবার ও অপরটি দোকানি ফারুকের।

ট্রাকটি ফেলে দুজন সটকে পড়ে। পরে অপর এক চালক ট্রাকটি সরিয়ে নিতে গেলে স্থানীয়রা তাকে পিটুনি দেয়। অবশেষে ঘটনাস্থলের অদূরবর্তী শহর পুলিশ ফাঁড়ির সামনে নেয় ট্রাকটি। বৈদ্যুতিক খুঁটিতে ধাক্কা দেয়ায় সংশ্লিষ্ট এলাকায় তথা বিডিআর ফিডারে বিদ্যুত সরবরাহ প্রায় ৫ ঘণ্টা বন্ধ রাখতে হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *