ভ্রাম্যমাণ আদালতে কাজি ফারুকের ৭ দিনের জেল ১ হাজার টাকা জরিমানা

 

আলমডাঙ্গার গোয়ালবাড়ি গ্রামের স্কুলছাত্রীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ের দু দিনের মাথায় বিষপানে আত্মহত্যা

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার গোয়ালবাড়ি গ্রামের মেধাবী স্কুলছাত্রীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে দেয়ায় বিষপানে আত্মহত্যা করে সে। ওই বাল্যবিয়ে পড়ানোর দায়ে কাজি ফারুককে ১ হাজার টাকা জরিমানা ও ৭ দিনের জেল এবং আরো ১ হাজার টাকা জরিমান অনাদায়ে ৩ দিনের জেল দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গার বাড়াদী ইউনিয়নের গোয়ালবাড়ি গ্রামের আসাদুলের মেয়ে মুন্সিগঞ্জ বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী শোভা খাতুনের (১৪) ইচ্ছার বিরুদ্ধে আসমানখালীর বাশঁবাড়িয়া গ্রামের সেলিমের সাথে গত ৫ জুলাই বিয়ের দিন ছিলো। বাঁধ সাধে শোভার বয়স। বাড়াদী ইউপি চেয়ারম্যানের নিকট জন্ম নিবন্ধন নিতে গেলে চেয়ারম্যান অপারগতা প্রকাশ করেন। বাড়িভর্তি আত্মীয়স্বজন ও বরযাত্রী। ডাকা হয় নতিডাঙ্গা গ্রামের ইছাহক আলীর ছেলে নতিডাঙ্গা দাখিল মাদরাসার শিক্ষক বহুল আলোচিত কাজি ফারুককে। তিনি শাদা কাগজে বিয়ে পড়িয়ে দেন। শোভা চলে যায় স্বামীর বাড়ি। সেখান থেকে গত ৭ জুলাই সোমবার পিতার বাড়িতে ফিরে দুপুরে বিষপান করে সে। পরিবারের লোকজন চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে তাকে ভর্তি করে। গত শুক্রবার অজ্ঞাত কারণে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্কুলছাত্রী শোভাকে বাড়িতে ফিরিয়ে নেয়া হয়। রাতে তার অবস্থার অবনতি হলে আবারো চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। কিন্তু তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। গত শনিবার সকালে সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। গত শনিবার সকালে তার লাশ গ্রামে পৌঁছুলে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। কেউই ধরে রাখতে পারেনি চোখের অশ্রু। এ বিষয়ে দৈনিক মাথাভাঙ্গা পত্রিকায় গুরুত্ব সহকারে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।

গতকাল রোববার সকালে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কমকর্তা আশরাফুল আলমের নেতৃত্বে গোয়ালবাড়ি গ্রামে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়। কাজি ফারুকের (৪০) স্বীকারোক্তিতে বাল্যবিয়ে পড়ানোর দায়ে তাকে ৭ দিনের জেল ও ১ হাজার টাকা জরিমানা এবং আরো ১ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ দিনের জেল দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় আলমডাঙ্গা থানার এসআই পিয়ার আলী সঙ্গীয় ফোর্স ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে বাড়াদী ইউপি চেয়ারম্যান তবারক হোসেন মাথাভাঙ্গাকে জানান, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক ও আলমডাঙ্গা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশ পেলে নিকাহ রেজিস্ট্রার ফারুকের লাইসেন্স বাতিল করা হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *