ভ্যাটের আওতায় আসছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়-মেডিক্যাল

 

স্টাফ রিপোর্টার: মূল্য সংযোজন করের (ভ্যাট) আওতায় আসছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিক্যাল কলেজ ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজগুলো। গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে এ প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বাজেট বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘‘ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের বিপরীতে বর্তমানে সঙ্কুচিত মূল্যভিত্তিতে সাত দশমিক ৫ শতাংশ মূসক প্রযোজ্য থাকলেও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, বেসরকারি মেডিকেল কলেজ এবং বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ওপর বর্তমানে মূসক আরোপিত নেই।’ ‘আমি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের পাশাপাশি এ খাতগুলোকে মূসকের আওতায় আনার প্রস্তাব করছি। তবে করভার সহনীয় পর্যায়ে রাখার লক্ষ্যে এক্ষেত্রে সংঙ্কচিত মূল্যভিত্তিতে ১০ শতাংশ মূসক নির্ধারণের প্রস্তাব করছি।’ চলতি ২০১৪-১৫ অর্থবছরে বাজেটের আকার ছিল দু লাখ ৫০ হাজার ৫০৬ কোটি টাকা। আর জিডিপি প্রবৃদ্ধির (মোট দেশজ উৎপাদন) লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭ দশমিক ৩ শতাংশ। ২০২১ সালের আগেই মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার স্বপ্ন পূরণের পথে এবার মূল বাজেটের আকার ধরা হয়েছে দু লাখ ৯৫ হাজার ১০০ কোটি টাকা, যা জিডিপির ১৭ দশমিক ২ শতাংশ। এর সাথে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে স্বায়ত্তশাসিত সংস্থাগুলোর জন্য বরাদ্দ প্রায় তিন হাজার ৯৯৬ কোটি টাকা যোগ করলে এর পরিমাণ প্রায় তিন লাখ কোটি টাকায় দাঁড়ায়।

ভ্যাটের আওতায় কোচিং সেন্টার: প্রস্তাবিত বাজেটে কোচিং সেন্টারকে সেবা খাতে অন্তর্ভুক্ত করে ভ্যাট বা মূল্য সংযোজন করের (মূসক) আওতায় আনার প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেট বক্তৃতায় তিনি এ প্রস্তাব করেন। অর্থমন্ত্রী তার বক্তৃতায় বলেন, ‘সাজসজ্জা বা বিউটিফিকেশন প্রশিক্ষণ কার্যক্রমকে মূসক ব্যবস্থায় ও কোচিং সেন্টারকে সেবা খাতে অন্তর্ভুক্ত করে মূসকের আওতায় আনার প্রস্তাব করছি।’

দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবল যুক্ত হচ্ছে শিগগি​র: প্রস্তাবিত বাজেটে অর্থমন্ত্রী অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ইন্টারনেট ও ডিজিটাল অবকাঠামো উন্নয়নে জোর দিয়েছেন। এছাড়া আগামী বছরের মধ্যে মহাকাশে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট (বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১) উৎক্ষেপণের স্লট নির্ধারণ ও চুক্তি সম্পাদন করার কথাও বলেছেন। তিনি বলেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের বিপরীতে প্রস্তাবিত বরাদ্দের মোট অঙ্ক ৩ হাজার ৫৮৭ কোটি টাকা।

ইন্টারনেট সেবা বাড়বে: প্রস্তাবিত বাজেটে অর্থমন্ত্রী বলেন, জনগণকে ইন্টারনেটের সেবা প্রদানের লক্ষ্যে প্রতিটি জেলার ১০০৬টি ইউনিয়নে প্রায় ১১ হাজার কিলোমিটার অপটিক্যাল ফাইবার কেব্‌ল স্থাপন করা হচ্ছে। এছাড়া সারা দেশে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা প্রদানের জন্য ওয়্যারলেস ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক স্থাপনের প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবলে সংযুক্ত হয়ে শিগগিরয় ব্যান্ডউইথ ক্যাপাসিটি ২০০ জিবিপিএস হতে ১ হাজার ৩০০ জিবিপিএসে উন্নীত হবে। এছাড়া ৮ হাজার ৫০০টি পোস্ট-ই-সেন্টার চালুর কার্যক্রম ২০১৭ সালের জুন মাসের মধ্যেই শেষ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এছাড়া ২০১৬ সালের মধ্যে মহাকাশে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট (বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১) উৎক্ষেপণের স্লট নির্ধারণ ও চুক্তি সম্পাদন করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *