ভারতের দমদম কেন্দ্রীয় কারাগারে দু হাজার বাংলাদেশি বন্দি

সাজার মেয়াদ শেষ হলেও দেশে ফিরতে পারছে না

 

স্টাফ রিপোর্টার: ‘ভারতের কোলকাতার দমদম কেন্দ্রীয় কারাগারে দু হাজারেরও বেশি বাংলাদেশি নাগরিক সাজার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও বন্দি জীবনযাপন করছেন। এদেরকে ফিরিয়ে আনতে সরকারের উদ্যোগ গ্রহণের প্রয়োজন। ভারতে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে উত্তর ২৪ পরগুণার বসিরহাট ও দমদম কেন্দ্রীয় কারাগারে সাজাভোগ শেষে দেশে আশা কয়েকজন বাংলাদেশি নাগরিক এ দাবি জানান। ওই নাগরিকরা গতকাল শনিবার ভোররাতে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার পারকৃষ্ণপুর গ্রামে একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয়। এর আগে মাথাভাঙ্গা নদী সাঁতরিয়ে পার হয় এবং পরবর্তীতে নিজ নিজ এলাকায় চলে যান।

ভারত থেকে আসা ওই ১২ জন হলেন, বাগেরহাটের বকুল বেগম (২২), ফরিদ মোল্লা (২৬) ও তার স্ত্রী মালা বেগম (২২), রাজু আহমেদ (২২), মনিরুজ্জামান (২৭) ও তার স্ত্রী আকলিমা বেগম (২২), আব্দুর রহিম (২৭), ফাহিমা বেগম (২৩) ও তার ভাই রানা হোসেন (১০) ও শাহাবুদ্দিন (২৬) এবং সাতক্ষীরার শেখ আজিজুর রহমান (৩০) ও কামাল হোসেন (২০)।

আব্দুর রহিম জানান, দালালের মাধ্যমে সাতক্ষীরা জেলার ভোমরা দিয়ে ভারতে যান। সেখানে বসিরহাট থানা পুলিশের হাতে আটক এবং আদালতে দু মাসের সাজার আদেশ পান। এরপর বসিরহাট ও দমদম কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঁচমাস সাজা ভোগ করেন। সাজা শেষে তাদেরকে কোলকাতা থেকে বিএসএফ গেদে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর তারা মাথাভাঙ্গা নদী সাঁতরে পারকৃষ্ণপুর গ্রামে যায়। গ্রামবাসীদের কাছে আশ্রয় নেয় এবং পরে নিজ এলাকায় ফিরে যায়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *