ভর্তির বাইরে রয়েছে এখনো ১৩৮৬ শিক্ষার্থী : ফুটে উঠেছে সমন্বয়হীনতা  

চুয়াডাঙ্গায় সরকারি কলেজসহ ২৪ কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছে ৫৫৫৪ শিক্ষার্থী

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার তিনটি সরকারি কলেজসহ ২৪টি কলেজে ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ৫ হাজার ৫৫৪ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে। ভর্তির বাইরে এখনো রয়েছে ১ হাজার ৩৮৬ জন শিক্ষার্থী। চলতি ২০১৭ সালের এসএসসি পরীক্ষায় জেলায় মোট পাস করেছে ৬ হাজার ৯৪০ জন শিক্ষার্থী । অথচ, সরকারি-বেসরকারি ২৪  কলেজে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিলো ১২ হাজার ১৫৭ জন শিক্ষার্থী ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ, সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজ ও দর্শনা সরকারি কলেজসহ ১৯ কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তির চাহিদা ছিলো ২ হাজার ৭৮৫ জন। এপর্যন্ত বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হয়েছে ৭৬৭ জন শিক্ষার্থী। মানবিক বিভাগে ভর্তির চাহিদা ছিলো ৬ হাজার ৩৮২ জন শিক্ষার্থী। মানবিক বিভাগে এপর্যন্ত ভর্তি হয়েছে ২ হাজার ৯৯০ জন শিক্ষার্থী। ব্যবসা শিক্ষায় ভর্তির চাহিদা ছিলো ২ হাজার ৯৯০ জন শিক্ষার্থী। এরমধ্যে এপর্যন্ত ভর্তি হয়েছে ৬৪৯ জন শিক্ষার্থী। সেকারণে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজসহ ২৪ কলেজে ৩ বিভাগেই আসন শূণ্য রয়েছে। তবে, সবচেয়ে বেশি আসন শূণ্য রয়েছে বেসরকারি কলেজসমূহে। এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগ ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে আসন বেশি খালি রয়েছে। মানবিক বিভাগে সব আসন পূরণ না হলেও মোটামুটি আসন পূরণ করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। আগামী ৪ জুলাই একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির শেষদিন রয়েছে।

এদিকে, চুয়াডাঙ্গা সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজ একাদশ শ্রেণির ৫৬৬ জন ছাত্রীকে গোলাপ ফুল দিয়ে বরণ করেছে। গতকাল শনিবার বেলা ১০টায় কলেজ মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে ছাত্রীদের বরণ করা হয়। এ উপলক্ষে ওরিয়েন্টেশন ক্লাস অনুষ্ঠিত হয়।

ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক মফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে ওরিয়েন্টটেশন ক্লাসে কলেজ অধ্যক্ষ নওরোজ মোহাম্মদ সাঈদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক অধ্যক্ষ শহীদুল ইসলাম ও উপাধ্যক্ষ ড. জাহাঙ্গীর আলম।

এসব কলেজের নবীন ও বর্তমান ছাত্রীরা বক্তব্য রাখেন। আলোচনা শেষে ছাত্রীদের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যক্ষ নওরোজ মোহাম্মদ সাঈদ নবাগত ছাত্রীদের উদ্দেশে বলেন,  শিক্ষা জীবনে নতুন একটি পথচলা শুরু হলো। শিক্ষক-অভিভাবকদের নির্দেশনা অনুযায়ী নিয়মিত পড়াশোনা ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে অংশ নিতে হবে। এর মধ্যদিয়ে তোমরা সকলেই আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে উঠবে।

এছাড়া, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ, দর্শনা সরকারি কলেজ ও চুয়াডাঙ্গা পৌর কলেজসহ বিভিন্ন কলেজে ওরিয়েন্টশন ক্লাশের মধ্যে দিয়ে একাদশ শ্রেণির কার্যক্রম আনুষ্ঠানিভাবে শুরু হয়েছে। এ সময় চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. কামরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। পৌর কলেজের অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলী বিশ্বাস বলেন, একাদশ শ্রেণির ওরিয়েন্টেশনে ক্লাশে শিক্ষার্থীদের হাতে রুটিন ও রজনীগন্ধার স্টিক তুলে দেয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীদের হতাশাজনক ভর্তিতে বিভিন্ন কলেজের অধ্যক্ষবৃন্দ হতাশা প্রকাশ করেছেন।

এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বিকাশ কুমার সাহা জানান, শিক্ষার্থী ভর্তির বিষয়ে তাদের কোনো কিছু করার নেই। তবে, শিক্ষার্থী লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ কিভাবে করা হয়েছে তা বলতে পারবো না। তবে, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখা হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *