বড় ভাইয়ের আত্মহত্যা : হাসপাতালে উত্তেজনা

দামুড়হুদায় গোবিন্দহুদা গ্রামে জমিজমা নিয়ে ৪ ভাইয়ের বিরোধ

দামুড়হুদা অফিস: দামুড়হুদার গোবিন্দহুদা গ্রামে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন বড় ভাই ইয়াসিন। এ ঘটনার এক পর্যায়ে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার গোবিন্দহুদা গ্রামের মৃত চসো মল্লিকের ছেলে ইয়াছিন মল্লিক (৫০), ইঞ্জিল মল্লিক (৪৮), ইন্তাজ মল্লিক (৪৫) ও সানোয়ার মল্লিকের (৪২) মধ্যে বছর দুয়েক আগে থেকে এজমালি জমির ভাগবাটোয়ারা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। ইতোমধ্যে সব জমির ভাগাভাগি সম্পন্ন হলেও সর্বশেষ ২৫ কাঠা জমি নিয়ে সেজ ভাই ইনতাজ মল্লিকের সাথে ছোট ভাই সানোয়ার মল্লিকের বিরোধ বাধে। স্থানীয় লোকজন এ বিবাদের মীমাংসা করতে ব্যর্থ হলে বিষয়টি থানা পর্যন্ত গড়ায়। এরই মধ্যে তিন ভাই জমি বণ্টন করে দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে বড় ভাই ইয়াছিন মল্লিকের ওপর। বড় ভাই তাদের মীমাংসা করার চেষ্টা করতে থাকেন; কিন্তু উচ্ছৃঙ্খল দু ভাই সানোয়ার ও ইনতাজ বড় ভাইয়ের কথা না শুনে বেফাঁস কথাবার্তা বলেন। অবশেষে ভাইদের ওপর অভিমান করে গতকাল বুধবার সকালে গোপনে মাঠে গিয়ে সবার অজান্তে ইয়াছিন কীটনাশক পান করেন। মাঠের লোকজন এ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখান চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

অপরদিকে যখন ইয়াছিন মল্লিকের শরীর থেকে বিষ বের করার চেষ্টা চলছিলো, সেই মুহূর্তে হাসপাতাল চত্বরে অন্য ২ ভাই, ভাইয়ের ছেলে ও জামাইদের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। উত্তেজনার এক পর্যায়ে মারামারিও  শুরু হয়। যখন পরিবারের সদস্যরা ইয়াছিন মল্লিকের মৃত্যুর খবর জানতে পারে, তখন নতুন করে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে তার লাশ গ্রামে নেয়া হয়। ঘটনার পরপরই এএসপি আসাদুজ্জামান (প্রবি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সম্পর্কে দামুড়হুদা মডেল থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে। ইয়াছিন মল্লিক দু সন্তানের জনক। গতকালই তার দাফন সম্পন্ন হয়।  

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *