বেগমপুরের যদুপুর গ্রামে সেপটিক ট্যাংকিতে নেমে পাখিভ্যান চালকের মর্মান্তিক মৃত্যু

 

বেগমপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদরের যদুপুর গ্রামে অব্যবহৃত পায়খানার ট্যাংকিতে পড়ে গৃহকর্তা আ. খালেকের মর্মান্তি মৃত্যু হয়েছে। গৃহকর্তার মৃত্যুতে পরিবার জুড়ে মেনে এসছে শোকের ছায়া।

নতুন পায়খার ট্যাংকি। এখনও ব্যবহার হয়নি। সে ট্যাংকি ব্যবহার করতে গতকাল সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকনি সরিয়ে পাইবের মুখ খুলতে ট্যাংকিতে নামে বেগমপুর ইউনিয়নের যদুপুর গ্রামের পুরাতন পাড়ার রমে কামারের ছেলে পাখিভ্যান চালক আবদুল খালেক (৫০)। ট্যাংকির মধ্যে নেমেই সাড়াশব্দ বন্ধ হয়ে যায়। বাড়ির লোকজনের চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে ট্যাংকি থেকে খালেককে ওপরে তোলার আগেই তার মৃত্যু হয়।

প্রতিবেশীরা জানায়, পায়খানার ট্যাংকিটি ব্যবহার করার পূর্বে ঢাকনা দিয়ে ঢাকা ছিলো। ট্যাংকির মধ্যে বিষাক্ত গ্যাসের সৃষ্টি হয়। ট্যাংকির মধ্যে নামার সাথে সাথে বিষাক্ত গ্যাসে খালেকের মৃত্যু ঘটে। এদিকে পরিবারের উর্পাজনক্ষম ৩ সন্তানের জনক গৃহকর্তার মৃত্যুতে পরিবার জুড়ে নেমে আসে শোকের ছায়া। সন্ধ্যার পরে জানাজা শেষে গ্রাম্য কবরস্থানে খালেকের দাফন কাজ সম্পন্ন করা হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published.