বিজয় আনন্দে মাতোয়ারা সারাদেশ : দলমত নির্বিশেষে মিষ্টিমুখ আর মিছিল

ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেটদলের বিশ্বকাপ কোয়াটার ফাইনালে ওঠার উল্লাস

 

স্টাফ রিপোর্টার: বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ইংল্যান্ডকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল হারানোর পরদিনও আনন্দে উদ্বেল সারাদেশ। বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠায় ক্রিকেটারদের অভিনন্দন জানিয়ে গতকাল মঙ্গলবার বিজয় মিছিল করেছে দলমত নির্বিশেষে বিভিন্ন দল ও সংগঠন। মিছিলে অংশ নিয়েছেন সকল পেশা-শ্রেণির নাগরিক। রাজধানীসহ চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহ সকল জেলা-উপজেলায় বিজয়ের উল্লাস চলছে। ক্রিকেটভক্তদের উন্মাদনায় গতকাল সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উত্সবমুখর ছিলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকা। বিজয় মিছিলে জেগে ওঠে রাজধানীর রাজপথ থেকে পাড়া-মহল্লার গলিও। ক্রিকেট দলকে অভিনন্দন ও দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে মিছিল করেছে আওয়ামী লীগ। এছাড়াও মিছিল বের করে বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল।

গতকাল সকাল থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল থেকে ছোট ছোট মিছিল নিয়ে টিএসসিতে সন্ত্রাস-বিরোধী রাজু ভাস্কর্যের সামনে মিলিত হন বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থীরা। তাদের আনন্দ সমাবেশে যোগ দেয় ছাত্রলীগও। এতে টিএসসি প্রাঙ্গণ পরিণত হয় জনসমুদ্রে। ঢোল বাজিয়ে নেচে-গেয়ে তারা উদযাপন করেন বাংলাদেশের বিজয়। জাতীয় পতাকা মাথায় বেঁধে, ক্রিকেট দলের লাল-সবুজ জার্সি পরে বিজয় উত্সবে শরিক হন অনেকে। আবার বিভিন্ন স্থানে ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে বিজয় মিছিল বের করেন তরুণ-তরুণীরা। জাতীয় পতাকা সংবলিত প্লাকার্ড, ব্যানার, সাবাশ বাংলাদেশ সংবলিত ব্যান্ড মাথায় বেঁধে বাংলাদেশ বাংলাদেশ স্লোগানে মুখরিত করেন রাজপথ। একইসাথে রঙ ছিটিয়েও তারা বিজয় উদযাপন করেন। বিজয়ের আবির ছড়িয়ে পড়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা ছাড়িয়ে পুরান ঢাকা, গুলিস্তান, মতিঝিল, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর, মিরপুর, গুলশান, বনানী, উত্তরাসহ নগরের বিভিন্ন প্রান্তে। স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছাড়াও বিজয় মিছিলে অংশ নেয় শ্রমজীবী, পেশাজীবী মানুষও।

গতকাল সাড়ে ১১টায় চুয়াডাঙ্গা ছাত্রলীগের উদ্যোগে একটি আনন্দ মিছিল চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা মোড় থেকে বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় পৌরসভা মোড়ে ফিরে যায়। বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে এ আনন্দ মিছিলে নেতৃত্ব দেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক।

বিকেল সাড়ে ৪টায় চুয়াডাঙ্গা কেদারগঞ্জ নতুন বাজার মোড় থেকে প্রাইভেটকার ও মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা সহকারে একটি আনন্দৱ্যালি বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে। শহর প্রদক্ষিণকালে শহীদ হাসান চত্বরে কিছুক্ষণের জন্য মিছিলটি থামিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে উৎসাহিত করতে বিভিন্ন স্লোগান দেয়া হয়। এ শোভাযাত্রাটি আবারো ফিরে যায় কেদারগঞ্জ মোড়ে। এ আনন্দ মিছিলে নেতৃত্ব দেন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু ও জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শরীফ হোসেন দুদু।

বিকেল ৫টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজর সামনে থেকে ৱ্যালিটি বের হয়ে শহরে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রেসক্লাবের সামনে শেষ হয়। ৱ্যালি শেষে প্রেসক্লাবের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য দিতে গিয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা বিএনপির সভাপতি এমএম শাহজাহান মুকুল বলেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট দল কোয়ার্টার ফাইনাল পেরিয়ে বাঙালি জাতির সেই কাঙ্ক্ষিত স্বপ্ন পূরণের দিকে অগ্রসর হবে।

সকাল ১১টার দিকে কোর্টমোড় থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রদল আনন্দৱ্যালি বের করে। জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক জাহেদ মো. রাজিব খানের নেতৃত্বে ৱ্যালিটি সাহিত্য পরিষদের সামনে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে সংক্ষিপ্তি সামবেসে আয়োজন করে। সমাবেশে প্রধান বক্তা রাজিব খান বলেন, বাংলাদেশ ক্রিকেটদলের এ দূরন্ত বিজয়ে দলকে অভিনন্দ জানান। তিনি আরও বলেন, কোয়ার্টার ফাইনালেও বিজয় লাভ করে সেমিফাইনালে পৌঁছাবে এবং দেশের মানুষকে আরও একবার আনন্দের জোয়ারে ভাসাবে।

বিকেল ৫টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়াসংস্থা ও জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার যৌথ উদ্যোগে আনন্দ মিছিল বের করা হয়। আতশবাজি ও বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে আনন্দ মিছিলটি চুয়াডাঙ্গা টাউন ক্লাব ফুটবল মাঠ থেকে বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে শহীদ হাসান চত্বর মোড় ঘুরে আবারো চুয়াডাঙ্গা টাউন ফুটবল মাঠে ফিরে যায়। এ আনন্দ মিছিলে নেতৃত্ব দেন জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সেলিনা খাতুন, জেলা মহিলা সংস্থার সভাপতি নুরুন্নাহার কাকলী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহসম্পাদক সরোয়ার হোসেন মধু, শহীদুল কদর জোয়ার্দ্দার ও মহসিন রেজা।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশ কোয়ার্টার ফাইনালে উঠায় মেহেরপুরের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষকে মিষ্টিমুখ করিয়েছে মেহেরপুর পৌরসভার মেয়র মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতু। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে পৌরসভার প্রধান গেটের সামনে পৌর মেয়র প্রায় দু ঘণ্টাব্যাপি নিজ হাতে মিষ্টিমুখ করান বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষকে। এছাড়া মেহেরপুর শহরে পৌরসভার গাড়িতে করে বাংলাদেশ জয়লাভ করায় ৫ হাজার মিষ্টি বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, শিশু-কিশোর, ব্যবসায়ীসহ সকল শ্রেণি-পেশার মানুষরে মাঝে মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে। এ সময় পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

গাংনী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, দুপুরে মিছিলটি শুরু হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। লাল-সবুজের পাতাকা হাতে মিছিলে যোগদেন বিভিন্ন বয়সী মানুষ। বিজয়ী মিছিলে উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহেল আহম্মেদ, সহসভাপতি আল ফারুক, ইউপি সদস্য নিয়ামত আলী, বাওট সোলাইমানী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

আমঝুপি প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গতকাল মঙ্গলবার সকালে আমঝুপি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফয়জুল কবির ও আলিফ হোসেনের নেতৃত্বে, শিক্ষক রাসেল হোসেন, সাজেদুর রহমান, হালিমা পারভিন, হাসান মো. কামরুদ্দোজা, শরিফুজ্জামানসহ বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা মিছিলে অংশ নেন। মিছিলটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় হতে আমঝুপির প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

ঝিনাইদহ অফিস জানিয়েছে, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঝিনাইদহ শহরের কেপি বসু সড়কের দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে বিজয় মিছিলটি বের হয়। জাতীয় পতাকা হাতে নিয়ে মিছিলে বাংলাদেশের পক্ষে বিভিন্ন স্লোগান দেন নেতাকর্মীরা। মিছিলটি শহরের গীতাঞ্জলি সড়ক প্রদক্ষিণ করে চাকলাপাড়া বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে শেষ হয়। পরে জেলা বিএনপির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক অ্যাড. এমএ মজিদের সভাপতিত্বে সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন তারা। সমাবেশ থেকে বিশ্বকাপে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শুভ কামনা করেন নেতাকর্মীরা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *