বাংলাদেশ সীমান্তে ইসরায়েলের তৈরি অত্যাধুনিক কাঁটাতারের বেড়া বসাবে ভারত

 

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ ও পাকিস্তান সংলগ্ন সীমান্ত দিয়ে অনুপ্রবেশ ঠেকাতে এবং নজরদারি জোরদার করার উদ্যোগ নিয়েছে ভারতের সীমন্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। এজন্য এ দুই দেশের সীমান্তে ইসরায়েলের তৈরি অত্যাধুনিক প্রযুক্তির কাঁটাতারের বেড়া বসানোর উদ্যোগ নিয়েছে তারা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম পিটিআইকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বিএসএফের মহাপরিচালক কে কে শর্মা জানান, ইসরায়েলের তৈরি অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এ কাঁটাতারের বেড়ায় নিজস্ব ‘কুইক রেসপন্স টিম’ মেকানিজম রয়েছে। এতে অনুপ্রবেশ হওয়ামাত্র স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংকেত পাঠাবে। পিটিআই-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, কয়েক বছরের মধ্যেই বাংলাদেশ ও পাকিস্তান সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দিতে উদ্যোগ নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। নরেন্দ্র মোদি সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ী, সীমান্তের নিরাপত্তা জোরদার করতে একটি বিশেষ প্রকল্প হাতে নিয়েছে বিএসএফ। এই প্রকল্পের নাম দেয়া হয়েছে কম্প্রিহেনসিভ ইন্টিগ্রেটেড বর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিআইবিএমএস)। সাক্ষাৎকারে কে কে শর্মা জানান, নতুন সীমান্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা তার দেশের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে এক দৃষ্টান্তমূলক পরিবর্তন আনবে। সীমান্তে নজরদারি ব্যবস্থার ক্ষেত্রে এক নতুন মোড় আসছে। এখন কুইক রিঅ্যাকশন টিমভিত্তিক ব্যবস্থা বসানোর পরিকল্পনা চলছে। তিনি জানান, ওই বিশেষ বেড়ায় লাগানো সিসিটিভি ক্যামেরা থেকে ফিড (ভিডিও) চলে যাবে বর্ডার আউটপোস্টে। মনিটরের মাধ্যমে সার্বক্ষণিক নজরদারি চালানো হবে। ফলে জওয়ানদের বাইরে বেশি পাহারা দিতে হবে না। শর্মা জানান, কেউ অনুপ্রবেশের চেষ্টা করলেই বিশেষ সফটওয়্যারের মাধ্যমে সংকেত পৌঁছে যাবে মনিটরে। তাছাড়া কাঁটাতারের সংস্পর্শে এলেই অ্যালার্ম বেজে উঠবে। ঠিক কোথায় অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালানো হয়েছে, তা জানা যাবে। সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। পিটিআই জানায়, ইতোমধ্যে জম্মুতে পাঁচ কিলোমিটার এলাকায় এই নতুন ব্যবস্থার কার্যকারিতা পরীক্ষা করা হচ্ছে। এছাড়া ত্রিপুরা, পশ্চিমবঙ্গ ও আসামে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত এবং গুজরাটে ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে এই বিশেষ সিস্টেম বসানো হবে। প্রসঙ্গত, ভারত সংলগ্ন বাংলাদেশ ও পাকিস্তান সীমান্তে মোট প্রায় ছয় হাজার ৩শ কিলোমিটার এলাকা পাহারা দেয় বিএসএফ।

Leave a comment

Your email address will not be published.