বাঁচানো গেলো না ব্রয়লার বিস্ফোরণে ঝলসে যাওয়া আব্দুল্লাকে

ঝিনাইদহে ডাকবাংলায় ইফাদ অটো রাইচ মিলে কাজ করার সময় প্রাণহানি

 

ডাকবাংলা প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের ডাকবাংলা নারায়ণপুর ত্রিমহনী এলাকার ইফাদ অটো রাইচ মিলের বয়লার বিস্ফোরণে ঝলসে যাওয়া আব্দুল্লাহ (২৭) মারা গেছে। এ দিয়ে একই বিস্ফোরণে নিহতে সংখ্যা দাঁড়ালো তিন।

গত ১৯ সেপ্টেম্বর রাতে বয়লার বিস্ফোরণে ইফাদ অটো রাইচ মিলটি ধসে পড়ে। গরম পানিতে ঝলসানো অবস্থায় আব্দুল্লাহকে উদ্ধার করা হয়। ধংসস্তুপ থেকে উদ্ধার করা হয় সফিউদ্দীন (৩৫) ও আসলাম হোসেনের (৪০) মৃতদেহ। আহত আব্দুল্লাহকে (২৮) প্রথমে ঝিনাইদহে পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে মারা যান। তিনি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার নাথকুণ্ডু গ্রামের আত্তাব হোসেনের ছেলে।

স্থানীয়রা বলেছেন, আব্দুল্লাহর তিনটি মেয়ে। বড় মেয়ে রনি আক্তারের বয়স ১২,  মেজো মেয়ে রিনা আক্তারের ৮, আর ছোট মেয়ে রানী আক্তারের বয়স মাত্র ৪ বছর। পিতাকে হারিয়ে সন্তানেরা বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। স্ত্রী জরিনা বেগম স্বামীকে হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। অপরদিকে বয়লার বিস্ফোরণে নিহত শ্রমিক পরিবারগুলোর প্রাপ্য ক্ষতিপূরণ প্রসঙ্গে দৈনিক মাথাভাঙ্গা’র সম্পাদকীয় কলামটি এলাকায় সাড়া জাগায়। এরই মাঝে ইফাদ অটো রাইচ মিলের মালিকপক্ষ জানিয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত ৩ পরিবারের প্রত্যেকের ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়া হচ্ছে। একই সাথে নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় সকলের নিকট দোয়া প্রার্থনাও করা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *