ফিলিং স্টেশনে ডাকাতি মামলার আসামি মজিবরেরস্বীকারোক্তি : রঘুনাথপুরের হাসান গ্রেফতার

 

 

চলতি বছরের দেশের ২২টি পেট্রোল পাম্পে ডাকাতি করে এ চক্র

এম আর বাবু: একটি তাজা হাত বোমা ও বোমা তৈরির সরঞ্জামাদিসহ গ্রেফতার ডাকাতদলের সর্দার বোমারু মজিবর (৩৫) আন্তঃদেশীয় ডকাতদলের একজন শীর্ষ নেতা। শনিবার রাতে জীবননগর থানা পুলিশ শহরের শাপলাকলিপাড়ায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করার পর সে জীবননগর ফিলিং স্টেশনসহ দেশের ২২টি ফিলিং স্টেশনে ডাকাতি সংঘটিত করার কথা পুলিশের নিকট স্বীকার করেছে। তার স্বীকারোক্তিতে পুলিশ শনিবার রাতে দামুড়হুদা উপজেলার রঘুনাথপুরে অভিযান চালিয়ে ডাকাতদলের সদস্য হাসানকে (৩৫) গ্রেফতার করা হয়েছে।

এছাড়াও শনিবার রাতে পুলিশ এ ডাকাতদলের অপর সদস্যদের গ্রেফতার করতে উপজেলার মনোহরপুর, কুষ্টিয়ার আলামপুর ও ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার রুদ্রপুর গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে। কিন্তু পুলিশের অভিযানের খবর টের পেয়ে তারা পূর্বেই তাদের অবস্থান পরিবর্তন করায় পুলিশ তাদের গ্রেফতার করতে ব্যর্থ হয়। গ্রেফতারকৃত হাসানও জীবননগর ফিলিং স্টেশনসহ দেশের ২২টি ফিলিং স্টেশনে ডাকাতি করার কথা স্বীকার করেছে। তারা আন্তঃদেশীয় ডাকাতদলের সদস্য এবং উত্তরবঙ্গের লালমনিরহাট জেলা থেকে কুমিল্লা ও বরিশাল এবং ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ হয়ে জীবননগর ফিলিং স্টেশনে ডাকাতি সংঘটিত করে পুলিশ জানিয়েছে। তাদের দলে লালমনিরহাট, ফরিদপুর, কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ ও চুয়াডাঙ্গা জেলার লোক রয়েছে বলে গ্রেফতারকৃতরা স্বীকার করে। তারা তাদের স্বীকারোক্তিতে পুলিশকে জানায়, যে এলাকায় যখন তারা ডাকাতি করে তখন তারা সে এলাকার সদস্যদের সহযোগিতা নিয়ে থাকে বলে পুলিশকে জানায়।

থানাসূত্রে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়নের কর্চ্চাডাঙ্গা গ্রামের আব্দুল হামিদ ব্যাপারীর ছেলে মজিবর রহমান তার স্বীকারোক্তিতে পুলিশকে জানায়, তাদের দলের সদস্য উপজেলার মনোহরপুরের একজনসহ তার শ্যালক ফরিদপুর জেলার সবুর জীবননগর ফিলিং স্টেশনে ডাকাতির পরিকল্পনা করে। তাদের পরিকল্পনা মোতাবেক কুষ্টিয়া জেলা সদরের আলমপুরের একজন, ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার রুদ্রপুর গ্রামের বোমা বিশেষ্ণজ্ঞ পিতা-পুত্র ও তার ভাগ্নি জামাই লালমনিরহাট জেলার মধ্যনগরের সজিবসহ জীবননগর উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বেশ কয়েকজন গত ২২ মে গভীর রাতে জীবননগর ফিলিং স্টেশনে ডাকাতি সংঘটিত করে। ডাকাতির অর্থের মধ্যে সে ৯ হাজার টাকা ভাগ পায় বলে জানায়। তার স্বীকারোক্তিতে গ্রেফতার দামুড়হুদা উপজেলার রঘুনাথপুরের হাসানও জীবননগর ফিলিং স্টেশনে ডাকাতির কথা স্বীকার বলে সে এ ডাকাতির অর্থের মধ্যে ৫ হাজার টাকা ভাগ পেয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা তাদের স্বীকারোক্তিতে পুলিশকে জানায়, চলতি বছর তারা দেশের লালমনিরহাট জেলা থেকে কুমিল্লা ও বরিশাল হয়ে কালীগঞ্জের বৈশাখী পেট্রোল পাম্প হয়ে জীবননগর ফিলিং স্টেশন পর্যন্ত ২২টি ফিলিং স্টেশনে ডাকাতি সংঘটিত করে। এর মধ্যে জীবননগর ফিলিং স্টেশনে ডাকাতির পর সর্বশেষ তারা কালীগঞ্জের বৈশাখী পেট্রোল পাম্পে ডাকাতি সংঘটিত করে। এর পূর্বে জীবননগর ফিলিং স্টেশনে ডাকাতি ঘটনার সাথে জড়িতরাও জীবননগর ফিলিং স্টেশনে ডাকাতির কথা স্বীকারসহ লুটকৃত অর্থ ভাগ নেয়ার কথা স্বীকার করে বলে পুলিশ জানায়।

উল্লেখ্য গত ২২ মে গভীর রাতে মুখোশ পরিহিত দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও বোমা হাতে ১৫-২০ জনের একদল ডাকাত জীবননগর ফিলিং স্টেশনে হানা দিয়ে পুলিশের পিকআপ ড্রাইভার, ফিলিং স্টেশনের নৈশপ্রহরী, ফিলিং ম্যান ও ম্যানেজারকে জিম্মি করে। এসময় তারা ফিলিং স্টেশন ম্যানেজারের রুমের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে ক্যাশ থেকে ২ লাখ ৪৯ হাজার ৪৫৬ টাকা লুট করে। এঘটনার সাথে জড়িতদের ধরতে পুলিশ ব্যাপক অভিযানসহ তদন্ত শুরু করে। এ ঘটনার সাথে জড়িতে সন্দেহে ইতঃপূর্বে পুলিশ ৮ জনকে গ্রেফতার করে। সর্বশেষ শনিবার রাতে এ দলের মূলহোতা ও পরিকল্পনাকারী মজিবরকে গ্রেফতার করা হলো। তার স্বীকারোক্তিতে রাতেই অভিযান চালিয়ে পুলিশ দামুড়হুদা রঘুনাথপুরের হাসানকে গ্রেফতারের মধ্যদিয়ে জীবননগর ফিলিং স্টেশনে ডাকাতির ক্লু উদঘাটন করতে পুলিশ সফল হলো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *