ফলোআপ: ঝিনাইদহ আসাননগরের ইউনুস অপহরণের ৮ দিন অতিবাহিত হলেও উদ্ধার হয়নি

 

বদরগঞ্জ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহ সাধুহাটির আসাননগর গ্রামের মৃত আজগর আলীর ছেলে ইউনুস আহমেদ (৪৭) অপহরণের ৮ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো পর্যন্ত কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। তবে পুলিশ ইউনুস আহমেদকে উদ্ধার করার জন্য সব রকমের প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। এলাকার অনেকেই অনেক কথা বলে এলেও সচেতন ও অভিজ্ঞ মহলের ধারণা, অতি নিকটতম ব্যক্তির দ্বারাই এ ধরনের অপহৃত সংঘটিত হয়ে থাকতে পারে? জড়িত থাকতে পারে বলে এলাকার সক্রিয় চাঁদাবাজরাও। তবে ইউনুস আহমেদ অপহরণের নেপথ্যের তথ্য উদ্ধারের জন্য স্থানীয় পুলিশ সন্দেহের অভিযোগে মুক্তার নামের একজনকে আটক করেছে বলে এক সূত্রে জানা গেছে।

অপহৃতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত ৮ জানুয়ারি বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাধুহাটি ইউনিয়নের এনায়েতপুর গ্রামের মুক্তার হোসেন পার্শ্ববর্তী আসাননগর গ্রামের মৃত আজগর আলীর ছেলে ইউনুস আহমেদকে তার নিজ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলযোগে তুলে নিয়ে যায় চুয়াডাঙ্গার বদরগঞ্জ বাজারে। এরই এক পর্যায়ে দাবি করা হয় মোটা অঙ্কের মুক্তিপণ। অপহৃত ইউনুস আহমেদের স্ত্রী আরজিনা বেগম জানান, আমার স্বামী অপহৃত হওয়ার পরই আমাদের পরিবারের কাছে মুক্তিপণ টাকা দাবি করেন। পরদিন ৯ জানুয়ারি সকালে ইউনুস আহমেদের স্ত্রী আরজিনা বেগম বাদী হয়ে সাধুহাটি ইউনিয়নের এনায়েতপুর গ্রামের মৃত দাউদ হকের ছেলে মুক্তার আলীর বিরুদ্ধে অপহরণের অভিযোগে তুলে ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এরই অভিযোগের ভিত্তিতে গত সোমবার সন্ধ্যায় বঙ্কিরা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই অজয় কুমার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে সাধুহাটির আসাননগর মহিলা দাখিল মাদরাসা এলাকা থেকে মুক্তার আলীকে আটক করে ঝিনাইদহ সদর থানায় সোপর্দ করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *