ফলোআপ: চুয়াডাঙ্গা পৌর কলেজের অদূরবর্তী বাগান থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার

 

 

দীর্ঘদিনে পরিচয় মেলেনি : ময়নাতদন্ত রিপোর্টও পায়নি পুলিশ

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা পৌর কলেজের অদূরবর্তী আমবাগান থেকে উদ্ধার করা অজ্ঞাত পরিচয়ের যুবকের মৃতদের পরিচয় মেলেনি। গত সাড়ে তিন মাসেও ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পুলিশের হস্তগত হয়নি।

পরিচয় না মেলার কারণে মামলার তদন্তও দায়সারা গোচের হচ্ছে। ময়নাতদন্ত পুলিশের হাতে না পৌঁছুলেও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চুয়াডাঙ্গা সদর থানার এসআই অহিদুল ইসলাম বলেছেন, অজ্ঞাত পরিচয়ের যুবক সম্ভবত নেশাগ্রস্ত অবস্থায় ছিলো। সে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে।

অজ্ঞাত পরিচয়ের যুবকের গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলোনো থাকলেও তার পা ছিলো হাঁটুগেড়ে মাটিতে। একই আমগাছে ঝুলছিলো তার একটি লাল ব্যাগ। বয়স আনুমানিক ২২ বছর বলে অনেকেই মন্তব্য করেন। গত ১ এপ্রিল স্থানীয়রা লাশ দেখে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালমর্গে নেয়। ময়নাতদন্ত শেষে বেওয়ারিশ লাশ হিসেবে আঞ্জুমান মফিদুল ইসলাম চুয়াডাঙ্গা কমিটির মাধ্যমে দাফনকাজ সম্পন্ন করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বলেছেন, যুবকের মৃতদেহের ছবি বিভিন্ন থানায় প্রেরণ করা হয়েছে। লাশ উদ্ধারের পর দেখে কেউ চিনতে পারেনি। সম্ভবত বহিরাগত। লাশ উদ্ধারের দিন পুলিশ মন্তব্য করতে গিয়ে বলেন, সম্ভবত বাইরের কোথাও থেকে ধরে হত্যা করে লাশ পৌর কলেজের অদূরবর্তী আমগাছে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

শেষ পর্যন্ত যুবকের পরিচয় না মেলার কারণে মামলাটির তদন্ত খুব বেশি দূর এগোয়নি। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পরপরই চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে পেশ করা হতে পারে। পুলিশসূত্র এরকমই তথ্য দিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.