প্রধান বিচারপতি হিসেবে শপথ

স্টাফ রিপোর্টার: নবনিযুক্ত প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা (এসকে সিনহা) শপথ গ্রহণ করেছেন। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ গতকাল শনিবার বঙ্গভবনের দরবার হলে সকাল ১১টা ৫ মিনিটে নতুন প্রধান বিচারপতিকে শপথবাক্য পাঠ করান। এসকে সিনহা ১৬ জানুয়ারি অবসরপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের স্থলাভিষিক্ত হলেন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব এম মোশাররফ হোসাইন ভূঁইয়া শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। শপথ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, সদ্যবিদায়ী প্রধান বিচারপতি এম মোজাম্মেল হোসেন, সাবেক প্রধান বিচারপতিগণ, মন্ত্রিসভার সদস্যবৃন্দ, বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টাগণ, প্রতিমন্ত্রীবৃন্দ, সুপ্রিম কোর্টের বিচারকগণ, তিন বাহিনী প্রধানগণ অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।

নতুন প্রধান বিচারপতি ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত দায়িত্বে থাকবেন। তিনি ১২ জানুয়ারি দেশের ২১তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে এ পদে নিয়োগ পান। প্রয়াত ললিত মোহন সিনহা ও ধনবতী সিনহার ছেলে এসকে সিনহা ১৯৫১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি মৌলভীবাজারে কমলগঞ্জ উপজেলায় রাণীরবাজার গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯৯ সালের ২৪ নভেম্বর হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। ২০০১ সালের ২৪ অক্টোবর তার চাকরি স্থায়ী হয়।

বিচারপতি সিনহা ২০০৯ সালের ১৬ জুলাই আপিল বিভাগে উন্নীত হন। তিনি ১৯৭৪ সালে সিলেট জেলা বার অ্যাসোসিয়েশনে একজন আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়ে সেখানে দুজন বিশিষ্ট আইনজীবীর তত্ত্বাবধানে কাজ করেন। এরপর তিনি ১৯৭৮ ও ১৯৯০ সালে যথাক্রমে হাইকোর্ট ও আপিল বিভাগের আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন।

এসকে সিনহা ১৯৯৯ সালে হাইকোর্ট বিভাগে নিয়োগপ্রাপ্তির আগ পর্যন্ত উচ্চতর আদালতে প্রখ্যাত আইনজীবী এসআর পালের তত্ত্বাবধানে পেশাগত দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতির প্রতিনিধি হিসেবে ২০০২ সালে লক্ষ্মৌতে অনুষ্ঠিত বিশ্বের প্রধান বিচারপতিগণের তৃতীয় আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগ দেন। তিনি ২০০৬ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলে বাংলাদেশের জ্যেষ্ঠ বিচারপতিগণের বিচার প্রশিক্ষণ এবং ২০১০ সালে কোরিয়ায় বিচার বিভাগীয় উন্নয়ন কর্মসূচিতে যোগ দেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *