প্রজন্মের মাঝে দেশত্ববোধ জাগাতে সুস্থধারার সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ মেলে ধরতে হবে

শোকদিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা জেলা লেখক সংঘ আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রফেসর ডা. মাহবুব হোসেন মেহেদী
স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক বিশিষ্ট চিকিৎসক প্রফেসর ডা. মাহবুব হোসেন মেহেদী বলেছেন, জাতির পিতা হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালিই শুধু নন, তিনি বিশ্ববরেণ্য কবিও। তার ঐতিহাসিক ভাসন এই স্বীকৃতি দেয়। আমরা যদি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করতে পারি, তাহলে দেশের ভবিষ্যত উজ্জ্বল হতে বাধ্য। প্রজন্মের প্রত্যেক শিশুর মধ্যে দেশাত্মবোধ জাগাতে প্রয়োজন সুস্থ ধারার সংস্কৃতিচর্চা। বঙ্গবন্ধুকে মেলে ধরা। চুয়াডাঙ্গা লেখক সংঘ সে দায়িত্বটাই পালন করে যাচ্ছে।
জাতীয় শোকদিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা লেখক সংঘ আয়োজিত আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অর্থোপেডিক চিকিৎসক মেহেদী উপরোক্ত মন্তব্য করে বলেন, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের অগ্রযাত্রায় আমরা যে যেখানে রয়েছে সকলকেই সর্বাত্মক সহযোগিতা করাই হবে দেশের জন্য কাজ করা।
গতকাল শুক্রবার বিকেল ৩টায় চুয়াডাঙ্গা শিশুস্বর্গে অনুষ্ঠিত ‘হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব’ শীর্ষক আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন সংঘের সহসভাপতি বেগমপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আহাম্মদ আলী। প্রধান আলোচক ছিলেন সংঘের উপদেষ্টা প্রফেসর (অব.) আব্দুল গফুর। বিশেষ আলোচক ছিলেন সোনালী ব্যাংক বঙ্গবন্ধু পরিষদ চুয়াডাঙ্গা প্রিন্সিপাল কমিটির সভাপতি নজির আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সংঘের সহসভাপতি ওমর আলী মাস্টার, আবুল কাশেম মাস্টার ও পৃষ্ঠপোষক সুরেশ কুমার আগরওয়ালা। জেলা লেখক সংঘের সাধারণ সম্পাদক কবি ময়নুল হাসানের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন শিক্ষক (অব.) পুষ্পারাণী আগরওয়ালা। অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। এ সময় লেখক সংঘের সভাপতি ডা. শাহীনূর হায়দারের সদ্যপ্রয়াত বড় বোন হাওয়া বেগমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয় ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয়।
অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে সাপ্তাহিক স্বরচিত সাহিত্য পাঠের আসর ‘প্রতিধ্বনি’ অনুষ্ঠিত হয়। চিরায়ত সাহিত্য কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘আমার কৈফিয়ত’ কবিতাটি আবৃত্তি করে শোনান নজির আহমেদ। স্বরচিত লেখা পাঠ করেন- সাবিনা ইয়াসমিন, আশরাফুন্নাহার শোভা, আফসানা মেহজাবিন শাপলা, শামীমা আখতার, মিম্মা সুলতানা মিতা, প্রিয়া ছন্দ (মেঘ), নিশাত শারমিন সোনিয়া, কানিজ ফাতেমা লগ্ন, তন্নী খাতুন, সুবর্ণা শোভা, ময়নুল হাসান, হেলাল হোসেন জোয়ার্দ্দার, চিত্তরঞ্জন সাহা চিতু, ইদ্রিস ম-ল, রাজু আনসারী, গোলাম রহমান চৌধুরী, কামরুজ্জামান রানা, জুবায়ের হাসান, হোসেন মোশাররফ, আব্দুল আলিম, বিপু চৌধুরী, রতন কুমার শর্মা, শাহাদাৎ হোসেন লাবলু, বাপ্পা কু-ু, আরিফুল ইসলাম হাওলাদার, জামিল হোসেন, হাবিবুর রহমান, রঘুনাথ পাল, অশোক দত্ত, আবুল কালাম আজাদ, আবুল কাশেম মাস্টার, ওমর আলী মাস্টার, বুলবুল আহমেদ, আহাম্মদ আলী, আজহারুল ইসলাম, আব্দুল কাদের, কারিউল ইসলাম, আশিকুজ্জামান আসাদ, আলী হোসেন, বিল্লাল হোসেন, নজির আহমেদ, আমিনুল ইসলাম চৌধুরী, আব্দুল গফুর, শঙ্কর কুমার প্রামাণিক, টিপু সুলতান, এমএম রাজু, এজাজ মাহমুদ পিয়াস, দর্জি নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *