পোলিং এজেন্টকে মারধর, জালভোটসহ বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে চলছে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের উপ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ

পোলিং এজেন্টকে মারধর, জালভোটসহ বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে চলছে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের উপ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ।

তুলনামূলককম ভোটার উপস্থিতিতে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীরা একেঅন্যের বিরুদ্ধে কেন্দ্র থেকে এজেন্ট বের করে দেওয়াসহ নানা অভিযোগওতুলেছেন।

বৃহস্পতিবার শহরের বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে এসব চিত্র দেখা যায়।

শীতলক্ষ্যানলুয়া ভোটকেন্দ্রে সকাল ১০টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী এস এম আকরামেরপোলিং এজেন্ট নিলয় দাসকে পিটিয়ে কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়াগেছে।

এস এম আকরাম অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতা মুন্না তার পোলিং এজেন্টকে মারধর করে বের করে দিয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জশহরের ১০ নম্বর শীতলক্ষ্যা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিংঅফিসার মফিজুল ইসলাম জানান, ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার পর আনারসের পক্ষে দুইজনপোলিং এজেন্ট আসেন। কিছুক্ষণ পর তারা আবার বের হয়ে যান।

এদিকে উপনির্বাচনে জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগে সৈয়দপুর বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ ১০ মিনিটের জন্য বন্ধ রাখা হয়।

প্রিসাইডিংকর্মকর্তা মুহিবুল হোসেন জানান, ওই কেন্দ্রে লাঙ্গল প্রতীকের একাধিকএজেন্ট রয়েছেন। লাঙ্গল প্রতীকের এজেন্টদের মধ্য থেকে জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগউঠলে সকাল ১১টা থেকে ১১টা ১০ মিনিট পর্যন্ত ভোটগ্রহণ বন্ধ রাখা হয় বলেজানান তিনি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *