পরেশ বড়ুয়া এখন চীনে!

স্টাফ রিপোর্টার: চট্টগ্রামের দশ ট্রাক অস্ত্র চোরাচালানের মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ইউনাইটেড লিবারেশন ফ্রন্ট অব আসমের (উলফা) সামরিক প্রধান পরেশ বড়ুয়া বর্তমানে চীনে অবস্থান করছেন বলে ভারতীয় গোয়েন্দারা জানিয়েছে। ভারতের গোয়েন্দা ব্যুরোর সূত্র জানায়, পরেশ বড়ুয়ার অবস্থান গত কিছুদিন ধরে একেবারেই অজানা থাকলেও সম্প্রতি তিনি তার সহযোগী জ্যোতির্ময় বরালির সাথে যোগাযোগ করেন। তার ওই ফোন কল ও সার্বিক তথ্য বিবেচনা করে ধারণা করা হচ্ছে তিনি চীনের রুই লি নামক শহরে অবস্থান করছেন। এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পরেশ বড়ুয়া সম্ভবত এক বান্ধবীর সাথে গত দু বছর ধরে সেখানে বসবাস করছেন। যদিও তার স্ত্রী ও দু সন্তান বাংলাদেশে বসবাস করছে। গত কয়েক মাসে নিজের নেতাকর্মীদের সাথে কোনোরকম যোগাযোগই করছিলেন না। তবে কিছুদিন আগে পরেশ বড়ুয়া তার সহযোগী জ্যোতির্ময়ের সাথে যোগাযোগ করে একটি জরুরি ব্যাগ উদ্ধারের ব্যাপারে খোঁজ-খবর নেন।

ভারতের গোয়েন্দা সূত্র জানায়, পরেশের সেই ব্যাগে তার ব্যবহৃত কয়েকটি সিম কার্ড ও জরুরি কিছু ফোন নম্বর আছে বলে কথোপকথনে জানা যায়। ওই ব্যাগটি ছিলো উলফার সহকারী অর্থ সম্পাদক পার্থ গগৈয়ের কাছে। তিনি ভারতীয় বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করার পরিকল্পনা করার পর পরেশ বড়ুয়ার নির্দেশে সংগঠনের কর্মীদের হাতে নিহত হন বলে ধারণা করা হয়। গত তিন মাসে পরেশ বড়ুয়ার নির্দেশে উলফার ১২ জন নেতা কর্মীদের হাতে নিহত হয়েছেন। জ্যোতির্ময়ের সাথে আলাপকালে পরেশ বড়ুয়া বলেন, ব্যাগে থাকা ফোন ডিরেক্টরি আর সিমগুলো নিরাপদে উদ্ধার করে আনা হয়েছে। বর্তমানে সেগুলো মিয়ানমারে পরেশ বড়ুয়ার আস্থাভাজন কারো কাছে রয়েছে। সূত্র বলছে, উলফা ও এনএসসিএন (কে) সংগঠন উন্মুক্তভাবে চীনে যাতায়াত করতে পারছে। তবে চীন সরকার সরাসরি এসব সংগঠনকে কোনো সহায়তা করছে বলে মনে হচ্ছে না।

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালের ১ এপ্রিল চট্টগ্রামের সিইউএফএল জেটিঘাটে দশ ট্রাক সমপরিমাণ অস্ত্র আটক করে পুলিশ। পরে তদন্তে দেখা যায়, চীনে তৈরি এসব অস্ত্র ও গোলাবারুদ সমুদ্রপথে উলফার জন্য আনা হয়েছিলো; বাংলাদেশের ভূখণ্ড ব্যবহার করে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিলো এ চালান। দশ বছর পর গত ৩০ জানুয়ারি চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ ও বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১ অস্ত্র চোরাচালানের মামলায় ওই মামলার রায়ে পরেশ বড়ুয়াসহ ১৪ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়। এদিকে, পরেশ বড়ুয়ার রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন জানিয়েছেন দলটির একাংশের (উলফা-ইনডিপেনডেন্ট) সভাপতি অভিজিত আসম। গত শনিবার ভারতীয় বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের কাছে পাঠানো এক ই-মেইলে তিনি এ আবেদন জানান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *