পথচারীদের বেঁধে ৩টি মোটরসাইকেল মোবাইল ও টাকা ছিনতাই

আলমডাঙ্গা বণ্ডবিলের ইটভাটার কাছে গাছ ফেলে দুষ্কৃতীদের সড়ক অবরোধ

 

স্টাফ রিপোর্টার: আলমডাঙ্গার বণ্ডবিলের মজিবরের ইটভাটার কাছে সড়কের ওপর গাছ ফেলে অবরোধ করে মোটরসাইকেল, মোবাইলফোন ও নগদ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। ছিনতাইকারীরা মোটরসাইকেলচালক ও আরোহীকে মারধর করে হাত-পা বেঁধে মাঠের মধ্যে ফেলে রেখে যায়। এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে। গতরাত সাড়ে ৮টার দিকে এ দুঃসাহসিক ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে।

এলাকাসূত্রে জানা গেছে, আলমডাঙ্গার পৌর এলাকার বণ্ডবিলের এনায়েতপুর বাইপাস সড়কের ওপর গাছ ফেলে সড়ক অবরোধ করে চারজনকে মারধর ও বেঁধে রেখে ৩টি মোটরসাইকেল ছিনতাই করে দুষ্কৃতীরা। আলমডাঙ্গা উপজেলার বাড়াদী ইউনিয়নের আনন্দবাস গ্রামের এক ব্যক্তি মারা যায়। মৃত ব্যক্তির কয়েকজন আত্মীয় ঢাকা থেকে ওই বাড়িতে আসার জন্য ঢাকার একটি কোচ থেকে নেমে বণ্ডবিলমোড়ে অপেক্ষা করছিলেন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে আনন্দবাস গ্রামের মনোয়ার, রসুল, পারকুলা গ্রামের মোস্তফা ও কুষ্টিয়া মিরপুরের খোকসা গ্রামের হাসিবুল ৩টি মোটরসাইকেল নিয়ে চারজনকে আনতে যান। এ সময় বণ্ডবিল গ্রামের মজিবরের ইটভাটা নামক স্থানে পৌঁছুলে পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা একদল ছিনতাইকারী সড়কের ওপর একটি মেহগনি গাছ ফেলে সড়ক অবরোধ করে তাদের গতিরোধ করে। এ সময় ছিনতাইকারীরা তাদেরকে মারধর করে তাদের কাছে থাকা ডায়াং-৮০ সিসি দুটি মোটরসাইকেল ও ১টি জংসেন মোটরসাইকেলসহ মোবাইলফোন ও টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেয়। এরপর মোটরসাইকেল চালক ও আরোহীদের হাত-পা বেঁধে মাঠের মধ্যে ফেলে রেখে চলে যায়। মৃতের বাড়ির লোকজন তাদের আসতে দেরি দেখে বণ্ডবিলে প্রতীক্ষায় থাকা আত্মীয়দের কাছে মোবাইলফোনে সন্ধান না পেয়ে রাত পৌনে ১০টার দিকে গ্রামের ১৫/২০ জন লাঠিসোঁটা নিয়ে তাদের খুঁজতে বের হয়। এ সময় বণ্ডবিলের ইটভাটার অদূরে তাদের হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যাপারে মোবাইলফোনে আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মনির হোসেন মোল্লা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মাথাভাঙ্গাকে জানান, ছিনতাই হওয়া মোটরসাইকেল উদ্ধার ও ছিনতাইকারীদের ধরতে পুলিশ তৎপর। এলাকায় অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.