নিরুপায় হয়ে ডাকাতি করতে এসেছি : যা আছে দিয়ে দেন

চুয়াডাঙ্গা হাসপাতালপাড়ায় অবসরপ্রাপ্ত কলেজশিক্ষকের বাড়িতে ডাকাতদলের হানা

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গায় একজন অবসরপ্রাপ্ত কলেজশিক্ষকের বাড়িতে গতকাল বুধবার ভোররাতে ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতেরা অস্ত্রের মুখে তাকে জিম্মি করে টাকা-পয়সা ও সোনার গয়না লুট করে। তবে ওই শিক্ষকের নিকটাত্মীয় সম্প্রতি মারা যাওয়ায় তারা কিছুটা সহানুভূতিও জানায়।
চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আবদুল হাই জানান, তার সন্তানেরা চাকরিসূত্রে জেলার বাইরে অবস্থান করেন। স্ত্রী কয়েক দিন আগে ঢাকায় গেছেন মেয়ের কাছে। ফলে চুয়াডাঙ্গা শহরের চক্ষু হাসপাতাল সড়কের তিনতলা বাড়িটির দোতলায় তিনি একাই অবস্থান করছিলেন। বুধবার ভোররাতে দোতলার পূর্ব পাশের ঘরের একটি জানালার গ্রিল খুলে অন্তত তিনজন দুর্বৃত্ত ভেতরে প্রবেশ করে তাকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ফেলে। দুর্বৃত্তদের হাতে ছিলো ধারালো অস্ত্র ও লোহার রড।

আবদুল হাই বলছেন, দুর্বৃত্তরা তার পরিবার সম্পর্কে আগে থেকেই জানত। কয়েক মাস আগে এক সড়ক দুর্ঘটনায় আবদুল হাইয়ের মেয়ের স্বামী ও একমাত্র সন্তান মারা যায়। সে কথা উল্লেখ করে ওই দুর্বৃত্ত বলে, ‘স্যার আমরা জানি, আপনার মনের অবস্থা খারাপ। কিন্তু টাকা-পয়সার প্রয়োজনে নিরুপায় হয়ে আপনার বাড়িতে এসেছি। যা আছে তাড়াতাড়ি দিয়ে দেন, আমরা চলে যাই।’
পরে দুর্বৃত্তরা ৪০ হাজার টাকা ও ৬-৭ ভরি সোনার গয়না লুট করে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশের কর্মকর্তারা গতকাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তোজাম্মেল হক বলেন, এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে। দুর্বৃত্তদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *