নিজের বাড়ির গেট টপকে ঢুকতে গিয়ে বুকে রড গেঁথে মৃত্যুশয্যায় কলেজছাত্র

 

মসজিদে লাইলাতুল কদরের নামাজ আদায়ের পর বাড়ি ফিরে প্রধান ফটক বন্ধ দেখে টপকানোর চেষ্টা

 

স্টাফ রিপোর্টার: গেট টপকে নিজেদের বাড়ি ঢুকতে গিয়ে বুকে রড গেঁথে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে কলেজছাত্র ইমন। গতরাত ১১টার দিকে সে তাদের কেদারগঞ্জপাড়াস্থ বাড়িতে গেট টপকে ঢুকতে গেলে এ ঘটনা ঘটে।

পরিবারের সদস্যরা বলেছে, লাইলাতুল কদরের নামাজ মসজিদে আদায় শেষে রাত ১১টার দিকে বাড়ি ফিরছিলো ইমন (১৭)। বাড়ির প্রধান গেট বন্ধ ছিলো। সে গেট টপকে ভেতরের ঢুকতে গেলে গেটের সুঁচালো ফলাকৃতির রড তার বুকের ডান পাজড়ে গেঁথে যায়। সেখান থেকে উদ্ধার করে তাকে দ্রুত নেয়া হয় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে। হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সাইদুর রহমান শামীম বলেছেন, ফুঁসফুঁস ছিদ্র হওয়ায় রাতেই তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অথবা ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

ইমন চুয়াডাঙ্গা কেদারগঞ্জপাড়ার সাঈদের ছেলে। ইমনকে হাসপাতালে নেয়া তার নিকটজনেরা অভিযোগ করে বলেছে, হাসপাতালে নেয়ার পর ইমার্জেন্সি বিভাগের জরুরি মোবাইলফোন দিয়ে ডা. শাহীন ও ডা. রুমীকে কল করার পরও সাড়া পাওয়া যায়নি। ফলে অসহায়ের মতোই আমাদের অপেক্ষা করতে হচ্ছে। রোগী মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। হাসপাতালের এমনই দশা যে, জরুরি প্রয়োজনে সার্জিক্যাল বিশেষজ্ঞদের কল করেও পাওয়া যায় না। এমনই এক জেলায় বাস করি আমরা। এসব যেনো দেখারই কেউ নেই।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.