নতুন বছরে নতুন শ্রেণির নতুন বই : উৎসব

প্রথম শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে পেলো পাঠ্যবই

 

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: দেশ জুড়ে পাঠ্যপুস্তক উৎসব। নতুন বছরে নতুন শ্রেণীর নতুন বই পিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছিলো ফুটে ওঠে আনন্দের বন্যা। বিদ্যালয়ে বিদ্যালয়ে এ উৎসবকে আরো প্রাণবন্ত করতে যুক্ত হন প্রশাসনিক কর্মকর্তা, সামাজিক নেতৃবৃন্দসহ অনেকে। নতুন বই হাতে পেয়ে হাসি মুখে বাড়ি ফেরে শিশু শিক্ষার্থীদের প্রায় সকলে। এই নিয়ে টানা ৫ বছর প্রথম শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে পাঠ্যবই পেলো। বছরের এই একটি দিনে একসঙ্গে সারা দেশের শিশু-কিশোররা মেতে ওঠে বই নিয়ে উৎসবে। নতুন বইয়ের তারা গন্ধ শুঁকে ভ্রমরের মতোই আলোড়িত-উজ্জীবিত হয়। নতুন বই নিয়ে তাদের উচ্ছ্বাসটা যেন মুক্ত বিহঙ্গের নীলাকাশে ডানা মেলে উড়ার মতোই। গতকাল বৃহস্পতিবার সারা দেশে প্রায় পৌঁনে ৪ কোটি কোমলমতি শিক্ষার্থীর হাতে সোঁদা গন্ধের নতুন পাঠ্যবই তুলে দেয়ার কাজ সূচিত হয়। এ উপলক্ষে দেশব্যাপী উদ্যাপন করা হয় পাঠ্যপুস্তক উৎসব। ওই উৎসবেরই কেন্দ্রীয় আসর বসে ঢাকায় গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুল ক্যাম্পাসে। এই দিন ঢাকার পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রাথমিক, ইবতেদায়ি, মাধ্যমিক, দাখিল ও কারিগরি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে যারা ভর্তি হয়েছে তাদের অনেকেই খালি হাতে স্কুলে গিয়ে পাঠ্যবই নিয়ে মহানন্দে বাড়ি ফেরে।

চুয়াডাঙ্গায় প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে সরকারি বই বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় স্থানীয় ভি.জে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় মিলনায়তনে কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মো. দেলোয়ার হোসাইন। সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মল্লিক সাঈদ মাহবুব। বক্তব্য রাখেন জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা খন্দকার আলাউদ্দিন আল আজাদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক রবিউল ইসলাম ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোক্তার হোসেন সরকার। উপস্থিত ছিলেন ভি.জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শরীফ উদ্দিন ও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহফুজুল হোসেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, বছরের শুরুতেই নতুন বই হাতে পাওয়া একটি আনন্দের খবর। বছরজুড়ে এ আনন্দ ধরে রাখতে হলে পড়াশোনায় আরো মনোযোগী হতে হবে।’

সারাদেশের ন্যায় চুয়াডাঙ্গা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বই বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বেলা ১১টার দিকে শিক্ষার্থীদের মাঝে এ বই তুলে দেয়া হয়। সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নুর হোসেন। প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিদ্দোৎসাহী সদস্য নুর-এ-রহমান। এছাড়া পরিচালনা পরিষদের অন্যান্য সদস্য ও শিক্ষকমণ্ডলী উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে কলাবাড়ি রামনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বই বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপস্থিত ছিলেন পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. সালাহ উদ্দীন, প্রধান শিক্ষক মো. মুস্তাফিজুর রহমান বজলু, পরিচালনা কমিটির সদস্য মো. শাহীনুজ্জামান, মো. জমির উদ্দীন, মো. মশিউর রহমান, সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. রেজাউল হকসহ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক, কর্মচারী ও অভিভাবকবৃন্দ। এ সময় ৭৭৫ জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে বই বিতরণ করা হয়।

জামজামি প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আলমডাঙ্গার জামজামি ইউনিয়নের প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের সকল বিদ্যালয় সমূহে উৎসবমূখর পরিবেশে শিক্ষার্থীদের মাঝে পাঠ্যবই বিতরণ করা হয়েছে। বেলা ১০টায় আলমডাঙ্গার ঘোষবিলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাইন্স ল্যাবরেটরি হলে পাঠ্যবই বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির দায়িত্বপ্রাপ্ত সভাপতি খোন্দকার হারুন রেজা। বক্তব্য রাখেন সিনিয়র শিক্ষক শামীম হাসান, খোন্দকার গোলাম, আবেদ মমিন, মহাম্মদ আলী, শিক্ষিকা হোসনে আরা, শাহনাজ পারভীন ও মল্লিকা খাতুন। সাবিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন মাহমুদ হেলাল ও মিনারুল ইসলাম।

ভ্রাম্যমা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গতকাল বেলা ১১টার দিকে আলমডাঙ্গা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় চত্বরে শিক্ষার্থীদের মাঝে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ উৎসবের উদ্বোধন করা হয়েছে। উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার দীনেশ চন্দ্র পাল। সভাপতিত্ব করেন বালিকা বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন।বিশেষ অতিথি ছিলেন বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পূর্ণিমা রানী সাহা ও আলমডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি খন্দকার শাহ্ আলম মন্টু। বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ইন্দ্রজিত দেব শর্মা, যুবলীগ নেতা তবারেক হোসেন তবা, সমাজকর্মী জামাল টুকু প্রমুখ।

মোমিনপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আলমডাঙ্গা উপজেলার পাঁচকমলাপুর-আলিয়াটনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গতকাল দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। পাঁচকমলাপুর-আলিয়াটনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল ওহাবের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম মণ্ডল। এ সময় বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকাসহ গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

ডিঙ্গেদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, চুয়াডাঙ্গা সদরের ডিঙ্গেদহ সোহরাওয়ার্দ্দী স্মরণী বিদ্যাপীঠের ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে বই বিতরণ করা হয়। উপস্থিত ছিলেন বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক সাইনুল বিশ্বাস, সহকারী প্রধান শিক্ষক ফারজানা বেগম, সহকারী শিক্ষক শাহাবুদ্দিন বিশ্বাস খোকন, উম্মে ছালমা, আকবার আলীসহ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক ও অভিভাবকবৃন্দ। এছাড়াও ডিঙ্গেদহ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, শ্রীকোল বোয়ালিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাখালডাঙ্গা দীননাথপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে বই বিতরণ করা হয়।

মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মুজিবনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের উদ্যোগে পাঠ্যপুস্তক বিতরণের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল সকালে মুজিবনগর মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে উপজেলা নির্বাহী কর্মাকর্তা অরুন কুমার মণ্ডল প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আফিল উদ্দীন। পরে  মুজিবনগর মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় হলরুমে বই বিতরণী অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রধান অতিথি থেকে বই বিতরণ করেন। সভাপতিত্ব করেন মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার গোলাম ফারুক।

বদরগঞ্জ ব্যুরো জানিয়েছে, বদরগঞ্জ আলিয়ারপুর আজিজ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বই বিতরণ করা হয়েছে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো.আব্দুল মোতালেবের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন কুতুবপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো.নজরুল ইসলাম নজু। বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আ.লীগের সদস্য মো. শাখাওয়াত হোসেন টাইগার, পরিচালনা সদস্য মো. মোমিনুল ইসলাম, মো. আজাদ ফেরদৌস পানজু ও রেশমা পারভিন। অনুষ্ঠানটি সার্বিক পরিচালনা করেন সহকারী শিক্ষক মো.সাইফুল ইসলাম স্বপন।

মহেশপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঝিনাইদহের মহেশপুর পৌর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের স্কুলমাঠে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে বই বিতরণ উদ্বোধন করেন মহেশপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ময়জদ্দীন হামিদ। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাছিমা খাতুনের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলাম, সহকারী শিক্ষা অফিসার মির্জা মিজানুর আলম, রোকুনুজ্জামান, জিল্লুর রহমান, হুমায়ন কবীর, মহেশপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সরোয়ার হোসেন, কোষাধ্যক্ষ বাবর আলী বাবু, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা ফাহিমা বানু প্রমুখ।

দামুড়হুদা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, দামুড়হুদা উপজেলায় ১৪৮টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১ লাখ ৫৮ হাজার ৭০টি এবং ৩৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ১ লাখ ৪৮ হাজার ২৯০টি পাঠ্য পুস্তক একযোগে বিতরণ করা হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে দামুড়হুদা পাইলট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ প্রাঙ্গণে অধ্যক্ষ নূর জাহান খাতুনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বিকাশ কুমার, সহকারী প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দিন, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আশরাফুল আলম, এম. নুরুন্নবী, আশেখ উদ দৌলা লিটন প্রমুখ। এর আগে সকাল ১০টার দিকে দশমী সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শফিউল কবির ইউসুফ। প্রধান শিক্ষক ওয়াহেদ মুরাদ, সদস্য ইমতিয়াজ হোসেনসহ অন্যান্য শিক্ষকগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

দর্শনা অফিস জানিয়েছেন, দামুড়হুদার সুলতানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বরে বই বিতরণের আয়োজন করা হয়। উপজেলা আ.লীগের যুগ্মসম্পাদক পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউপি চেয়ারম্যান জাকারিয়া আলমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক দামুড়হুদা উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আজাদুল ইসলাম আজাদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোক্তার হোসেন, দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফরিদুর রহমান, উপজেলা আ.লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নুরজাহান, প্রকৌশলী ইলিয়াস হোসেন, রহমতুল্লাহ প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন ফারুক হোসেন।

দর্শনা অফিস আরও জানিয়েছে, দর্শনা ডিএস ফাজিল (ডিগ্রি) মাদরাসাসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে দর্শনা ডিএস ফাজিল (ডিগ্রি) মাদরাসা চত্বরে অনুষ্ঠিত পাঠ্যপুস্তক বিতরণ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি গোলাম ফারুক আরিফ। আলোচনা করেন সদ্য বিদায়ী অধ্যক্ষ মাও. ইউসুফ আলী, কেরুজ শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি জয়নাল আবেদীন, সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম প্রিন্স, দর্শনা রেলবাজার দোকান মালিক সমিতির সভাপতি তোফাজ্জেল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সাবির হোসেন মিকা, মাদরাসার শিক্ষক, মাও. শফি, আবু জাফর, আফ্রিক, আ. হামিদ, আরিফুল ইসলাম প্রমুখ। পরে শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনুষ্ঠানিকভাবে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করা হয়।

আলমডাঙ্গা ব্যরো জানিয়েছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার সমস্ত প্রাথমিক, মাধ্যমিক, এবতেদায়ি ও দাখিল মাদরাসায় বিনামূল্যে বই বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল বেলা ১১টায় আলমডাঙ্গা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ করা হয়। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আশরাফুল আলম। প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন, থানা অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম, রেফাউল হক, সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম ও প্রধান শিক্ষক হারেজ উদ্দিন। বক্তব্য রাখেন পিয়ার মোহাম্মদ কচি, শামসুজ্জোহা, নুরুল ইসলাম, প্রভাষক মিজানুর রহমান, শিপরা বিশ্বাস ও তহিদুল ইসলাম।

এছাড়া বেলা ১১টার দিকে এরশাদপুর একাডেমিতে বই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মতিয়ার রহমানের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা আয়ুব হোসেন, অভিভাবক সদস্য চায়না খাতুন, বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবুল হোসেন, হামিদুল ইসলাম, আমজাদ হোসেন, রহমান মুকুল, শরিফুজ্জামান প্রমুখ। শেষে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ করা হয়। এছাড়া আলমডাঙ্গা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, আলমডাঙ্গা পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, এম সবেদ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, হারদী মীর শামসুদ্দিন আহমেদ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কুমারী ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, পাঁচলিয়া জামাল উদ্দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বেলগাছী মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও বাদল স্মৃতি একাডেমী বিদ্যালয়ে বই বিতরণ করা হয়।

সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, চুয়াডাঙ্গার সরোজগঞ্জ এলাকার বিভিন্ন বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক পর্যায়ের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করা হয়েছে। ছাদেমান নেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিনামূল্যে বই বিতরণ করা হয়। গতকাল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা কৃষকলীগের সভাপতি আজিজুল হক। উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল্লা শেখ, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান আবু তাহের, পূবালী ব্যাংক সরোজগঞ্জ শাখা ব্যবস্থাপক মারুফ হাসান, তেঁতুলশেখ কলেজের অধ্যক্ষ গোলাম কিবরিয়া, প্রধান শিক্ষক আবু সালেহ, ম্যানিজিং কমিটির সদস্য জালাল উদ্দিন মহর, নুর ইসলাম, জাহাঙ্গীর আলম, সমাজসেবক নাসির উদ্দিন, ছাত্রীদের অভিভাবক ও বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন শিক্ষক সাইফুল আওয়াল।

জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার জীবননগর উপজেলায় বই বিতরণ উৎসবের উদ্বোধন করা হয়েছে। উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম মোর্তূজা সকালে দৌলৎগঞ্জ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক স্তরের ও জীবননগর পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক স্তরের বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিয়ে এ উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। একই সাথে শাপলাকলি আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ উপজেলার প্রত্যেকটি বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিয়ে উৎসবের উদ্বোধন করা হয়।

সকালে দৌলৎগঞ্জ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম মোর্তূজা প্রধান অতিথি হিসেবে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেন। সভাপতিত্ব করেন প্রধান শিক্ষক সুলতান আহমেদ। বেলা ১১টার দিকে পাইলট বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক যাদব কুমার প্রারামাণিকের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন ওসি শিকদার মশিউর রহমান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আমজাদ হোসেন, উপজেলা শিক্ষা অফিসার লুৎফর রহমান, সীমান্ত ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান ও রায়পুর ইউপি চেয়ারম্যান তাহাজ্জত হোসেন। শাপলাকলি আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক বাকীবিল্লাহ’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বই বিতরণ উৎসবে ম্যানেজিং কমিটির সদস্যবৃন্দ ও শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুর জেলা প্রশাসক মাহমুদ হোসেন মেহেরপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের হাতে ২০১৪ সালের নতুন বই তুলে দিয়ে বই বিতরণের উদ্বোধন করা হয়। উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজনীন সুলতানা, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নিখিল রঞ্জন, প্রধান শিক্ষক কাজি আনিসুজ্জামানসহ শিক্ষা বিভাগের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ। মাধ্যমিক স্তরের ১৫৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৬ লাখ বই বিতরণ করা হয়। একই দিন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শহরের এসএম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক স্তরের বই বিতরণ উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মাহমুদ হোসেন। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এসএম তৌফিকুজ্জামানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান খন্দকার আমিরুল ইসলাম পালু, সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার আমজাদ হোসেন ও সেভ দি চিলড্রেন মেহেরপুরের ব্যবস্থাপক ফারুক হোসেন। গতকাল ৪১১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাড়ে চার লাখ বই বিতরণ করা হয়। একই দিন মেহেরপুর জেলার অন্যান্য উপজেলার প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের হাতে ২০১৪ সালের নতুন বই তুলে দেয়া হয়।

বেগমপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, চুয়াডাঙ্গা সদরের হিজলগাড়ি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গতকাল পাঠ্যবই বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আশরাফুল হক মাসুমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বেগমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলী হোসেন জোয়ার্দ্দার। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য আলী কদর, আনোয়ার হোসেন, তোফাজ্জেল হোসেন ও আবুল কালাম। উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ওয়াজেদ আলী, সহকারী প্রধান শিক্ষক আলী হোসেন, সহকারী শিক্ষক শফিকুল ইসলাম, আবুল হোসেন, সাজেদুর রহমান, আজিজুল হক, আবুল বাসার, আব্দুল কুদ্দুস, শাহিন আক্তার, কানিজ ফাতেমা, শাহানাজ পারভীন, আমজাদ হোসেন, ইউসুপ আলীসহ এলাকার শিক্ষানুরাগী ও সুধীমহল।

এদিকে গতকাল সকাল ১০টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সীমান্ত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই তুলে দেয়া হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিসেস মাহজেবিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেন বিদ্যালয়ের সভাপতি ৬ বডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল এসএম মনিরুজ্জামান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *