দৌলতপুরে পুলিশ হেফাজতে আসামির মৃত্যু

দৌলতপুর প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানা পুলিশের হেফাজতে থাকা জাকির হোসেন ওরফে জাফর (২৩) নামে এক আসামি মারা গেছে। সে উপজেলার প্রাগপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত মোশারফ হোসেনের ছেলে। গত শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে রাতেই পুলিশ স্থানীয় জন প্রতিনিধিদের মাধ্যমে নিহতের মা ও ভাইকে তুলে এনে শাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

দৌলতপুর থানার ওসি (তদন্ত) রাশেদুল আলম  জানান, ১৭৫/২০১৩ মাদক মামলার পলাতক আসামি জাকির হোসেন ওরফে জাফরকে (২৩) তেকালা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এএসআই মাসুদ শুক্রবার ভোরে আটক করে শনিবার বেলা ২টার দিকে থানায় দিয়ে যায়। এরপর রাতে সে মারা যায়। দৌলতপুর হাসপাতালের চিকিৎসকের বরাত দিয়ে তিনি আরো জানান, জাফর হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছে এবং সে মাদকাসক্ত ছিলো বলেও তিনি নিশ্চিত করেছেন। পুলিশ নিহতের ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালমর্গে প্রেরণ করেছে।

অপরদিকে নিহতের মা রোকেয়া খাতুন জানান, শুক্রবার রাত ২টার দিকে তেকালা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এএসআই মাসুদ তার ছেলে জাফরকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। এরপর শনিবার দুপুরে জাফরকে দৌলতপুর থানায় নিয়ে আসার পর কোর্টে না পাঠিয়ে থানাহাজতে রেখে দেয়া হয়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে জাফর মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লে দৌলতপুর হাসপাতালে নেয়া হয়। তিনি বলেন, তার ছেলেকে ক্যাম্পে আটকে রেখে দারোগা মাসুদ অমানুষিক নির্যাতন করার ফলেই সে মারা গেছে। এদিকে এ ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য রাত ১২টার দিকে স্থানীয় জন প্রতিনিধিদের মাধ্যমে নিহতের মা রোকেয়া খাতুন ও ভাই সুমনকে তুলে এনে পুলিশ শাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়েছে বলে তারা জানিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *