দৌলতদিয়ায় ৩ কিলোমিটার জুড়ে গাড়ির লাইন

 

স্টাফ রিপোর্টার: প্রিয়জনদের সাথে ঈদের ছুটি কাটানো শেষ। এবার কর্মস্থলে ফেরার পালা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই দৌলতদিয়া ঘাটে কর্মমুখী মানুষ ও যানবাহনের চাপ বাড়তে শুরু করে। দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা থেকে এসব মানুষ ও গাড়ি আসতে থাকে। দুপুরের পর থেকে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় বাস, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকারের লাইন দীর্ঘ হতে থাকে। দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে চলাচলকারী ১৯টি ফেরির মধ্যে ৩টি রোরো (বড়) ফেরি তীব্র স্রোতের কারণে চলাচল করতে পারছে না। এছাড়া ইউটিলিটি ফেরি মধবীলতা যান্ত্রিক ত্রুটিতে বিকল হয়ে আছে। অপরদিকে দৌলতদিয়া ঘাটের চারটি ফেরি ঘাটের মধ্যে ২নং ঘাটটি নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে বন্ধ আছে।

সূত্র জানায়, ঘাট পন্টুন ও ফেরি সঙ্কটের কারণে দৌলতদিয়া বৃহস্পতিবার বিকাল নাগাদ ফেরি ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে মহাসড়কের দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ এলাকা পর্যন্ত অন্তত ৩ কিলোমিটার জুড়ে সৃষ্টি হয় গাড়ির দীর্ঘ সারি। দীর্ঘ সময় সিরিয়ালে আটকে থাকা সাধারণ বাসযাত্রীরা চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।  বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে যানবাহনের চাপ। আটকেপড়া দূরপাল্লার বিভিন্ন পরিবহনের চালক ও সুপারভাইজাররা জানান, তাদের গাড়ি কখন ফেরির নাগাল পাবেন তা তারা বলতে পারছেন না। অন্যদিকে দীর্ঘ সময় সিরিয়ালে আটকে থাকায় সাধারণ যাত্রীদের অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন নারী ও শিশু যাত্রীরা। দৌলতদিয়া ঘাটে কর্মরত বিআইডব্লিউটিসির ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. সফিকুল ইসলাম জানান, এই নৌরুটে ১৫টি ফেরি সচল রয়েছে। তীব্র স্রোতে বড় তিনটি ফেরি চলাচল করতে না পারায় কিছু যানবাহন আটকা পড়েছে।

 

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *