দৈনিক মাথাভাঙ্গা কার্যালয় প্রেসক্লাব এবং আপন ঘরে ভালোবাসায় সিক্ত হলেন সম্পাদক

তুমি এই দিনে পৃথিবীতে এসেছো, শুভেচ্ছা তোমায়….

 

স্টাফ রিপোর্টার: ‘আজকের আকাশে অনেক তারা, দিন ছিলো সূর্যে ভরা। আকাশের জোছনাটা আরও সুন্দর, সন্ধ্যাটা আগুন লাগা। আজকের পৃথিবী তোমার জন্য ভরে থাকা ভালো লাগা, মুখরিত হবে দিন গানে গানে, আগামীর সম্ভাবনায়। তুমি এই দিনে পৃথিবীতে এসেছো, শুভেচ্ছা তোমায়….’ গানের সুরেই সরদার আল আমিনের ঘুম ভাঙে গতকাল।

পরশু রাত ১২টা ০১ মিনিটে কর্মক্ষেত্রে সহকর্মীদের কেক কাটা, সহধর্মিণীর টেলিফোনে শুভেচ্ছার পর ভোরে ঘুম। শীতের রোদ একটু কড়া হতেই গানের আওয়াজটা বেড়ে যায়, আর তখন চোখ মেলতেই পাশে দেখেন দু ছেলে শ্রেষ্ঠ আর শীর্ষ। হাতে ফুলের তোড়া। মুখে মিষ্টি হাসি। আব্বু তোমাকে তোমার শুভ জন্মদিনের শুভেচ্ছা। ঘরজুড়ে তখন ফুলের সুবাস। ঘরের চার দেয়ালও তখন যেন হাত বুলিয়ে পুত্রকে পিতা করছেন সোহাগ। দিনভর মোবাইলফোনে শুভেচ্ছা। কমপক্ষে দেড়শজনের ফোন, আর ম্যাসেজ? সেটাও সারাদিনে সংখ্যায় দাঁড়িয়েছে ৭১৪টিতে। সন্ধ্যায় চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব ও সাংবাদিক সমিতি চুয়াডাঙ্গা ইউনিটের কার্যকরী কমিটির দায়িত্বভার হস্তান্তর এবং গ্রহণ পর্ব শেষে জন্মদিনের আয়োজনে মেতে উঠলেন সাংবাদিক সমাজ। সরদার আল আমিনের অজান্তেই আয়োজন, খানেকটা চমকানোর মতোই। কাটা হলো কেক, ছড়ানো হলো ফুলের পাপড়ি। শুধু কি কেক? কেক কাটার পর একে অপরের মুখে তুলে দেন সকলে। সে এক অভূতপূর্ব দৃশ্য। এরপর চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের পক্ষে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান সকল সাংবাদিক। নেতৃত্বে ছিলেন সভাপতি মাহতাব উদ্দীন। প্রেসক্লাবের পর সাংবাদিক সমিতির পক্ষে প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক সরদার আল আমিনের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান, সমিতির সভাপতি অ্যাড. এসএম শরীফ উদ্দীন হাসু, সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহার আলী। চুয়াডাঙ্গার সকল সাংবাদিকের পক্ষে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান দর্পণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন ও আকাশ খবর সম্পাদক প্রকাশক অ্যাড. তছিরুল আলম মালিক ডিউকসহ উপস্থিত প্রবীণ সাংবাদিবৃন্দ।

প্রেসক্লাবে জন্মদিনের আয়োজন শেষে সম্পাদক পত্নীর আমন্ত্রণে সম্মিলিতভাবে সাড়া দিলেন চুয়াডাঙ্গার সাংবাদিক সমাজ। সেখানেও মিলনমেলা। আপ্যায়নপর্ব শেষ হতে ঘড়ির কাঁটা রাত সাড়ে ১০টায়। তখনও সম্পাদক পত্নী স্কুলশিক্ষিকা লুনা শারমীন শশীর বিশেষ উৎসাহে দু সন্তানের প্রস্তুত রাখা কেক কাটার অপেক্ষা। দৈনিক মাথাভাঙ্গার প্রধান দফতরের বার্তা বিভাগ, মুদ্রণ বিভাগ, সার্কুলেশন বিভাগের সকলেই হাজির। কাটা হলো কেক। এবারের জন্মদিনে সরদার আল আমিনের দীর্ঘায়ু কামনা করলেন সকলে। সরদার আল আমিন সকলের নিকট তার অসুস্থ মায়ের জন্য পুনরায় দোয়া চাইলেন। সকলকে নিজ নিজ পিতা-মাতার প্রতি যত্নবান হওয়ারও অনুরোধ জানালেন। আর নিজের জন্য বললেন- পাশে থাকুন, সাথে থাকুন সকলে সারাজীবন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *