দেশসেরার খেতাব জয় করেছে আলমডাঙ্গা কলাকেন্দ্রের শিক্ষার্থী তমা বিশ্বাস

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা ২০১৬ অংশ নিয়ে সারাদেশে ১ম হয়ে স্বর্ণপদক জয় করে ঘরে ফিরেছে আলমডাঙ্গা কলাকেন্দ্রের শিক্ষার্থী তমা বিশ্বাস। গত ২১ জানুয়ারি ঢাকাস্থ জাতীয় শিশু একাডেমি ভবনে অনুষ্ঠিত জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে পল্লিগীতিতে সে এ গৌরব ছিনিয়ে এনেছে। এ গৌরবের স্বীকৃতি স্বরূপ গত ২৩ জানুয়ারি প্রেসিন্ডেন্টের হাত থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে সে স্বর্ণপদক লাভ করেছে। এ অনন্য স্বীকৃতিতে জেলার অন্যতম প্রধান সাংস্কৃতিক সংগঠন আলমডাঙ্গা কলাকেন্দ্র তার গৌরবের ধারা অব্যাহত রাখতে পেরেছে।
জানা গেছে, গত ৩ জানুয়ারি জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা ২০১৬’র খ বিভাগে পল্লিগীতিতে অংশ নিয়ে আলমডাঙ্গা কলাকেন্দ্রের শিক্ষার্থী ব্রাইট মডেল স্কুলের ১০ম শ্রেণির ছাত্রী তমা বিশ্বাস ১ম স্থান অর্জন করে। গত ৭ জানুয়ারি জেলা পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েও একই গ্রুপে সে ১ম স্থান অর্জন করে। এছাড়া গত ১৬ জানুয়ারি খুলনা বিভাগীয় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয় যশোরে। যশোর শিল্পকলা একাডেমিতে খুলনা বিভাগের ১০ জেলার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে তমা বিশ্বাস ১ম স্থান অর্জন করে। এ ধারাবাহিক অনন্য সাফল্যের স্বর্ণালী আশিস সাথে নিয়েই সে ঢাকায় অনুষ্ঠিত জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে দেশসেরার খেতাব ছিনিয়ে আনে। আলমডাঙ্গা কলাকেন্দ্রের সঙ্গীত ও নৃত্যের প্রশিক্ষক হিসেবে এসএম সেলিম ও তবলাসহ বাদ্যযন্ত্রের প্রশিক্ষক সুশীল কর্মকার ঢাকার জাতীয় প্রতিযোগিতায় তমা বিশ্বাসের সাথে দিতে যান।
তমা বিশ্বাস আলমডাঙ্গা শহরের কাছারি বাজারের জগবন্ধুর বিশ্বাসের মেয়ে। গত ২৩ জানুয়ারি ঢাকাস্থ জাতীয় শিশু একাডেমিতে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদ তার হাতে স্বর্ণপদক তুলে দেন। বাংলাদেশ শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান কথা সাহিত্যিক সেলিনা হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন শিশু ও মহিলা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, শিশু ও মহিলা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাসিমা বেগম।
আলমডাঙ্গা কলাকেন্দ্র বেশ কয়েক বছর ধরে খুলনা বিভাগে শ্রেষ্ঠত্বের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছে। তমা বিশ্বাস ছাড়াও ঝর্ণা খাতুন একই প্রতিযোগিতায় ভাব সঙ্গীতে উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে ১ম স্থান ও খুলনা বিভাগীয় পর্যায়ে ২য় স্থান অধিকার করেছে। কয়েক দিন পর সেও জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে ঢাকায় যাবে। ইতঃপূর্বে বিটিভি’র রজত জয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় কলাকেন্দ্রের শিক্ষার্থি রজনী খাতুন সারাদেশে লালনগীতিতে ২য় ও নজরুলসঙ্গীতে ৩য় হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। আন্তঃপ্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিযোগিতায়ও দেশগানে সে সারাদেশে ৩য় স্থান অর্জন করেছে। আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকাস্থ প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরে অনুষ্ঠিতব্য অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে সে পুরস্কার গ্রহণ করবে। কলাকেন্দ্রের শিক্ষার্থী পিংকী সম্প্রতি বিটিভি’র নিয়মিত তালিকাভূক্ত নৃত্যশিল্পী হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছে। ২০০৭ সালে বৈশাখী টেলিভিশন আয়োজিত পদ্মকুঁড়ি প্রতিযোগিতায় সারাদেশে প্রথম হয়েছিলো এ কলাকেন্দ্রের সাবেক শিক্ষার্থী কৃপা। কৃপা বর্তমানে স্কলারশিপ নিয়ে জাপানে নাচের ওপর ধ্রুপদী প্রশিক্ষণ নিচ্ছে।
জেলার অন্যতম প্রধান সাংস্কৃতিক সংগঠন আলমডাঙ্গা কলাকেন্দ্রের সভাপতি ইকবাল হোসেন এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে প্রতিষ্ঠাকাল থেকে এ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করে আসছেন রেবা সাহা। ১৯৯০ সাল থেকে আজোবধি অবৈতনিকভাবে শিক্ষার্থীদের সঙ্গীত ও নৃত্যের প্রশিক্ষণ দিয়ে যাচ্ছে। এ সংগঠনটি এখন খুলনা বিভাগের অন্যতম সাংস্কৃতিক সংগঠন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *