দেবীর অধিবাসের মধ্যদিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু

0
35

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: দেবীর অধিবাসের মধ্যদিয়ে হিন্দুধর্মের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দুর্গোৎসব গতকাল বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে। সারাদেশের মতো চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর ও কুষ্টিয়ার বিভিন্ন পূজামণ্ডপে পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় চুয়াডাঙ্গা কুলচারা হিন্দু সম্প্রদায়ের মাঝে শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ করেন চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন। এরপর কুলচারা পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেন তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফুল আরিফ বিশ্বাস লিটু, জামাল উদ্দীন, এনামুল, রিজু, মখলেস ও লিটন প্রমুখ। এরপর মেয়র কুলচারা উত্তরপাড়া মসজিদের উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করেন এবং আর্থিক সহায়তার আশ্বাস দেন।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে দেবীর অধিবাসের মধ্যদিয়ে হিন্দুধর্মের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হয়েছে। মেহেরপুর জেলা পরিষদের প্রশাসক জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মিয়াজান আলী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বামনপাড়া পূজামণ্ডপে ফিতা কেটে শারদীয় দুর্গাপূজার উদ্বোধন করেন। এ সময় মন্দির কমিটির সভাপতি মুকুল দাস, সাধারণ সম্পাদক তেঁতুল দাস, ইউপি সদস্য দরুদ আলী প্রমুখ সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

আমলা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, কুষ্টিয়া মিরপুর উপজেলার মালিহাদের নতুনপাড়া মন্দিরে গতকাল পূজা উদযাপন শুরু হয়েছে। উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি মালিহাদ ইউপি চেয়ারম্যান বদর উদ্দীন ভদো। মালিহাদ পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি শ্রী নিমাই দাসের সভাপতিতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মালিহাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলমঙ্গীর হোসেন জোয়ার্দ্দার, পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক শ্রী নারায়ণ দাস।

আমঝুপি প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আমঝুপি ইউনিয়নের আমঝুপি রাধামাধব ও চাঁদবিল রাধা শ্যাম মন্দিরে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার মন্দিরে মন্দিরে পূজা অর্চনা ও অতিথি আপ্যায়ন করা হয়।

মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মুজিবনগর উপজেলার বিভিন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক মাহমুদ হোসেন। গতকাল দুপুরে মুজিবনগর উপজেলার মোনাখালী দাসপাড়া পূজামণ্ডপ, কর্মকারপাড়া পূজামণ্ডপ, দারিয়াপুর পূজামণ্ডপ ও বল্লভপুর পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক মাহমুদ হোসেন। এ সময় সফর সঙ্গী ছিলেন মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোকতার হোসেন ও মুজিবনগর উপজেলার পূজা কমিটির সভাপতি ডা. সুকুমার কর্মকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here