দু যুবক আদম ব্যাপারীর খপ্পরে মালয়েশিয়া পাড়ি জমাতে গিয়ে দালাল চক্রের হাতে বন্দি

 

 

স্টাফ রির্পোটার: আলমডাঙ্গার পল্লি রামনগর ও কাঠাভাঙ্গা গ্রামের দু যুবককে প্রলোভন দেখিয়ে অল্প টাকায় নদীপথে মালয়েশিয়া নিয়ে যাবার কথা বলে দালালের কাছে বিক্রি করা হয়েছে বলে সংবাদ পাওয়া গেছে। নদীপথে ট্রলারে করে থাইল্যান্ড হয়ে মালয়েশিয়া যাবার পথে বাংলাদেশের দালাল চক্র থাইল্যান্ডের দালালের কাছে দু জনকে বিক্রি করে দিয়েছে। দালাল চক্র বাংলাদেশের দালালের মাধ্যমে দাবী করেছে মোটা অঙ্কের টাকা। তাদের উদ্ধারে পারিবারের লোকজন শেষ সম্বল ২ কাঠা ভিটে বাড়ির জমি বিক্রি করে বিকাশের মাধ্যমে ৪ লাখ টাকা পরিশোধ করেছে। আদম ব্যাপারী কাঠাভাঙ্গা গ্রামের লিল্টুকে আটক করে গণধোলাই দিয়েছে এলাকাবাসী।

এলাকা সূত্রে জানা গেছে, ১ মাস ১০ দিন আগে আলমডাঙ্গার পল্লি কাঠাভাঙ্গা গ্রামের সাদ্দাম বিশ্বাসের ছেলে ও রামনগর গ্রামের আজিজুল মালিথার ছেলে আলীকে কাঠাভাঙ্গা গ্রামের হাট স্কুলপাড়ার আজিজুলের ছেলে আদম ব্যাপারী লিল্টুর (৩৮) মাধ্যমে নদী পথে ট্রলারে করে ভিসা পাসপোর্ট ছাড়াই মালয়েশিয়া পথে রওনা হয়। গত মঙ্গলবার তারাসহ ১০ জন থাইল্যান্ডে গিয়ে পৌঁছায়। সেখানে গিয়ে বাংলাদেশের দালাল চক্র তাদের থাইল্যান্ডের দালালদের কাছে বিক্রি করে দেয়। এর পর থেকে তাদের ওপর করা হয় অমানুষিক নিযার্তন। মোবাইলফোনের মাধ্যমে তাদের পরিবারের লোকজন জানতে পারে তাদের সন্তান অপহরণকারীচক্রের হাতে বন্দি। ০১৮১৯০৭৭৬৬০ মোবাইল নম্বর থেকে দাবি করা হয় ৪ লাখ টাকা। টাকা পরিশোধ করা না হলে তাদের হত্যা করে সাগরে ভাসিয়ে দেয়া হবে বলে হুমকি দেয়া হয়। সন্তানের বিপদের কথা শুনে আলীর পিতা আজিজুল বাড়ির গরু, জমি বিক্রি করে বিকাশের মাধ্যমে ২ লাখ টাকা পরিশোধ করে। অপরদিকে সালামের পিতা দিনমজুর সাদ্দাম বিশ্বাস সন্তানের কথা ভেবে শেষ সম্বল ভিটে বাড়ির জমি বিক্রির টাকা দালালের কাছে বিকাশের মাধ্যমে দিয়েছে। গতকাল দুপুরে সংবাদ পেয়ে আলী ও সালামের পারিবারের লোকজন এলাকাবাসীর সহযোগিতায় কাঠাভাঙ্গা গ্রামের আজিজুলের ছেলে আদম ব্যবসায়ী লিল্টুকে মাঠ থেকে তাড়িয়ে ধরে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পোলতাডাঙ্গা গ্রামের একটি বাড়িতে আটকে রাখে। দিনব্যাপি চলে সালিস বৈঠক। সালিস বৈঠকে দু পক্ষের মধ্যে চলে ব্যাপক উত্তেজনা। এ সময় বাড়াদী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সম্রাট ও সেক্রেটারি মকলেচ উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করে এবং ২ লাখ টাকায় আপস হয়।

আলী ও সালামের পরিবারের লোকজন অভিযোগ করে জানায়, কাঠাভাঙ্গা গ্রামের আদম ব্যাপারী লিল্টু দু জনের কাছ থেকে বিদেশে মোটা অঙ্কের টাকার চাকরীর প্রলোভন দেখিয়ে মোট ৪ লাখ টাকা নেয়। গত ১ মাস ১০ দিন আগে বাড়ি থেকে তাদের ঢাকার একটি নাইট কোচে করে ঢাকা নিয়ে যায়। সেখান থেকে চট্টগ্রামে নিয়ে গিয়ে ট্রলারে করে মালয়েশিয়ার উদ্দেশে নদী পাথে নিয়ে যায়। গত মঙ্গলবার মোবাইলফোনে আলী ও সালাম জানায়, তাদের অপহরণ করা হয়েছে। তাদের দেয়া টাকা দালালদের হাতে পৌঁছায়নি। সব টাকা কাঠাভাঙ্গার লিল্টু মেরে দিয়েছে। তাই তাদের একটি দালাল চক্রের কাছে বিক্রি করে দিয়েছে। ৪ লাখ টাকা না দিলে তাদের মেরে সাগরে ভাসিয়ে দেয়া হবে। করা হচ্ছে ব্যাপক নিযার্তন। সারা দিনে এক বেলা খেতে দেয়া হচ্ছে। সেই সংবাদে পারিবারের লোকজন ভিটে বাড়ি ও গরু ছাগল বেচে গতকাল ৪ লাখ টাকা বিকাশের মাধ্যমে বাংলাদেশের দালালদের কাছে পরিশোধ করেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তাদের ভাগ্যে কী ঘটেছে জানা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আদম ব্যাপারী আটক লিল্টু জানায়, আলী ও সালামের কাছ থেকে টাকা নিয়ে টেকনাফের শফিউল্লার কাছে ইসলামী ব্যাংকের মাধ্যমে মোট ৪ লাখ টাকা দেয়া হয়েছে। কেনো তারা অপহরণকারীদের খপ্পরে পড়েছে জানি না। অপর দিকে কাঠাভাঙ্গা গ্রামের উকিলের ছেলে শারীরিক প্রতিবন্ধী ওদুদকে (১৬) নদী পথে মালয়েশিয়ায় নিয়ে যাবার কথা বলে তাকে আটকে রাখা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম জানান, এমন কোনো বিষয় আমি জানি না। কেউ মামলা করতে আসেনি। সঠিক তথ্য প্রমাণ নিয়ে মামলা করতে এলে মামলা নেয়াসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *