দু একদিনের মধ্যেই থানা ও পৌর কমিটি গঠন

চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির বৈঠক

 

৪টি থানাকে ৬টি সাংগঠনিক থানায় রূপান্তরের সিদ্ধান্ত গৃহীত

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার ৪টি থানাকে ৬টি সাংগঠনিক থানায় রূপান্তর করছে বিএনপি। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সভায় আহ্বায়কের প্রস্তাবনার প্রেক্ষিতে আলমডাঙ্গার গাংনী ও চুয়াডাঙ্গা সদরের বেগমপুর এবং তিতুদহ ইউনিয়ন নিয়ে নতুন সাংগঠনিক থানা কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

গতকাল শনিবার সকার ১০টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মুহা. অহিদুল ইসলাম বিশ্বাসের সভাপতিত্বে সভায় যুগ্ম আহ্বায়ক মাহমুদ হাসান খান বাবু, ওয়াহেদুজ্জামান বুলা, খন্দকার আব্দুল জব্বার সোনা ও মজিবুল হক মজুসহ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। জেলা আহ্বায়ক কমিটির অপর কেন্দ্রীয়ভাবে অর্পিত দায়িত্বের বিষয় নিয়ে বিশদ আলোচনা করা হয়। দু একদিনের মধ্যেই চুয়াডাঙ্গার ৪টি পৌর, ৬টি সাংগঠনিক থানা কমিটি গঠনপূর্বক প্রকাশ করা হবে। এ কমিটি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমিটি গঠন করবে। নির্ধারিত ৪৫ দিনের মধ্যেই জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের লক্ষ্যে সম্মেলন সম্পন্ন করার বিষয়েও আলোচনা করা হয়।

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক স্বাক্ষরিত প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্যদিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু হয়। আহ্বায়ক বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্রদত্ত দায়িত্ব হিসেবে জেলা বিএনপিকে ঐক্যবদ্ধ করার লক্ষ্যে সকলকে কাজ করার আহ্বান জানান। তিনি সকল থানা, পৌর কমিটি গঠনের মধ্য দিয়ে প্রতিটি ইউনিয়নসহ ওয়ার্ড কমিটি সর্বসম্মতিক্রমে গঠনের গুরুত্বারোপ করে বলেন, যেহেতু আলমডাঙ্গা বড় উপজেলা। ইতোমধ্যেই গাংনী থানা হয়েছে। ফলে গাংনীকে বিএনপির সাংগঠনিক থানা হিসেবে নতুন কমিটি গঠন করা প্রয়োজন। এছাড়া চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ও তিতুদহ ইউনিয়ন দুটি নিয়েও পৃথক সাংগঠনিক থানা গঠন প্রয়োজন।

জেলা বিএনপির আহ্বায়কের প্রস্তাবানার প্রেক্ষিতে বৈঠকে উপস্থিত সকলে সর্বসম্মতিক্রমে তা সমর্থন করেন। এছাড়া আহ্বায়ক তথা সভার সভাপতির স্বাগত বক্তব্যও সভা অনুমোদন করে। সভা শেষে বিএনপির ইন্তেকাল করা সকল সদস্যের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ দোয়ার আয়োজন করা হয়। আব্দুর রশীদ মালিতা, আমেনা বেগম, পদ্মবিলা ইউনিয়ন ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহেরের মায়ের বিদেহী আত্মার মাগফেরাতের কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

সূত্র বলেছে, সভায় দু একদিনের মধ্যেই থানা ও পৌর কমিটি গঠন করে সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডকে আরো গতিশীল করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সোমবার শহীদ হাসান চত্ত্বরে সমাবেশ সফল করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ওইদিনই আহ্বায়ক ও যুগ্ম আহ্বায়কেরা বসে চুয়াডাঙ্গার ৪টি পৌর ও ৬টি সাংগঠনিক থানা বিএনপির কমিটি গঠন করা হতে পারে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *