দুর্বৃত্তদের আগুনে পুড়েছে দশম শ্রেণির এক ছাত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: বিয়েতে রাজি না হওয়ায় আঁখি নামের এক ছাত্রীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। দগ্ধ অবস্থায় মেয়েটিকে গোপালগঞ্জ থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে আনা হয়েছে। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। শরীরের ৯৬ ভাগই পুড়ে গেছে। আঁখি চৌধুরীর বাড়ি গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার আন্দারকোটা। সেখানকার নিজরা সপ্তপল্লী উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী সে।

পরিবারের অভিযোগ, বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় উজ্জ্বল রায় নামের এক বখাটে এ কাজ করেছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের ব্লু বিভাগে গিয়ে দেখা যায়, যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে আঁখি চৌধুরী। আঁখি যন্ত্রণাকাতর কণ্ঠে জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ির দোতলার জানালার পাশে বসে পড়ার সময় মুখে গামছা বাঁধা দুজন লোক আমার ঘরে ঢোকে। এরপর তারা আমাকে বেঁধে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এরপর আর কিছু মনে নেই। বার্ন ইউনিটের দায়িত্বরত চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, আঁখির শরীরের ৯৬ শতাংশ পুড়ে গেছে। অবস্থা ভালো নয়।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *