দুর্ঘটনা : দু এইসএসসি পরীক্ষার্থী আহত

 

আলমডাঙ্গার আটকপাটের দু নসিমনের মুখোমুখি সংঘর্ষ

 

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গার আটকপাটের নিকটবর্তী স্থানে দু নসিমনের মুখোমুখি সংঘর্ষে খাসকররা কলেজের দু এইসএসসি পরীক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে।তাদের মধ্যে ঘোলদাড়ির তানিয়ার দু পা ভেঙে গুড়িয়ে গেছে। তাকে বর্তমানে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।মানসিক ভারসাম্য হারানো পার লক্ষ্মীপুরের সালেহাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।এইসএসসি পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার পথে গতকাল দুপুরে ওই দুর্ঘটনা ঘটে।

জানাগেছে, উপজেলার ঘোলদাড়ি গ্রামের ইব্রাহিমের মেয়ে তানিয়া খাতুন ও পারলক্ষ্মীপুর গ্রামের মহি উদ্দীনের মেয়ে সালেহা খাতুন আলমডাঙ্গার খাসকররা কলেজের মেধাবী ছাত্রী।এ বছর তারা এইসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে।গতকাল রোববার ছিলো ইসলামের ইতিহাস পরীক্ষা। আলমডাঙ্গা ডিগ্রি কলেজকেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়ে বেলা ১টার পর তারা খাসকররা এলাকার অন্যান্য ৮-১০ জন মেয়ের সাথে লক্ষ্মীপুরের আরমান আলীর নসিমনে বাড়ি ফিরছিলো। পথিমধ্যে আটকপাট অতিক্রম করে একশো দেড়শো মিটার গেলে সামনের দিক থেকে দ্রুত গতিতে ছুটে আসা আরেকটি নসিমন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাদের নসিমনকে সজোরে ধাক্কা দেয়। সাথে সাথে নসিমন থেকে ছিটকে পড়ে তানিয়া ও সালেহা। তানিয়ার দু পা হাঁটুর নিচ থেকে ভেঙে গুড়িয়ে গেছে।

অন্যদিকে, সালেহার মাথার পেছন দিকে প্রচণ্ড আঘাত লাগে।আঘাতের সাথে সাথে সে অনুভূতি ও দৃষ্টি শক্তি হারিয়ে ফেলে। তাদের দুজনকে উদ্ধার করে প্রথমে আনন্দধামের আব্দুল হামিদ মেমোরিয়াল প্রাইভেট হাসপাতালে নেয়া হয়। অবস্থা সঙ্কটাপন্ন দেখে তানিয়াকে দ্রুত চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ও সালেহাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়।পরে তানিয়াকে ঢাকাস্থ পঙ্গু হাসপাতালে নেয়া হয়। এদিকে দুর্ঘটনা ঘটানো নসিমনচালক খাসকররার আবু তালেব বর্তমানে পলাতক।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *