দুই নেত্রীকে সংলাপে বসতে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠি

স্টাফ রিপোর্টার: গঠনমূলক সংলাপে বসে সুষ্ঠু ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচনের পথে অগ্রসর হতে বাংলাদেশের দু প্রধান নেত্রীকে আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা এবং বিএনপি চেয়ারপারসন জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গত রোববার চিঠি দিয়ে এ তাগিদ দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি। প্রায় অভিন্ন ভাষায় লেখা চিঠিতে জন কেরি দু নেত্রীকে গঠনমূলক সংলাপে বসার আহ্বান জানান। যাতে অবাধ, সুষ্ঠু ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচনের লক্ষ্যে একটি উপায় খুঁজে বের করা সম্ভব হয়।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির এ চিঠি দুটি গত রোববার প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর ও বিএনপি চেয়ারপারসনের দপ্তরে পৌঁছে দেয়া হয় বলে সূত্র জানায়। প্রধানমন্ত্রী চিঠি প্রাপ্তি সম্পর্কে আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদমাধ্যমকে কিছু জানানো হয়নি। তবে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী জন কেরির চিঠির প্রাপ্তি স্বীকার করেছেন। মার্কিন দূতাবাসের মুখপাত্র গতকাল সোমবার দু নেত্রীকে চিঠি দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

শমসের মবিন চৌধুরী জানান, গণমাধ্যমকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশে যে রাজনৈতিক সংকট সৃষ্টির আশঙ্কা তৈরি হয়েছে, সে ব্যাপারে জন কেরি উদ্বেগ প্রকাশ করেন। কালক্ষেপণ না করে সংলাপ ও আলোচনার মাধ্যমে সবদলের অংশগ্রহণে একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য সমঝোতায় পৌঁছা জরুরি বলে জন কেরি উল্লেখ করেন।

মার্কিন প্রশাসনের পক্ষে জন কেরির এ তাগিদের আগে জাতিসংঘ মহাসচিব গত ২৩ আগস্ট সরাসরি দু নেত্রীকে টেলিফোন করে অনুরূপ আহ্বান জানান। মহাসচিব বান কি মুন শেখ হাসিনা ও খালেদা জিয়াকে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে টেলিফোন করে আসন্ন নির্বাচন ও রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেন। বান কি মুন দু নেত্রীকে গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা রক্ষার স্বার্থে অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের ওপর জোর দেন। সেজন্য নির্বাচন ইস্যুতে ঐকমত্য সৃষ্টির লক্ষ্যে কার্যকর সংলাপে বসার জন্য দু প্রধান নেত্রীকে তাগিদ দেন বান কি মুন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *