দায়িত্বভার গ্রহণের পর পতাকাযুক্ত গাড়িতে ফিরলেন জাতীয় সংসদের হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন : বদরগঞ্জের সংবর্ধনায় বললেন

বিএনপি জোটকে আগামীতে নির্বাচনে অংশ নিতে হলে অবশ্যই মানুষ পোড়ানোর রাজনীতি পরিহার করতে হবে

স্টাফ রিপোটার: দায়িত্বভার গ্রহণ করে জাতীয় সংসদের হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি চুয়াডাঙ্গায় ফিরেছেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারত শেষে গতকাল বিকেলে চুয়াডাঙ্গায় ফেরার পথে পথে যেমন সংবর্ধিত হয়েছেন, তেমনই প্রটোকল অনুযায়ী জেলা সার্কিট হাউজে পৌছুতেই প্রদান করা হয়েছে গার্ড অব অনার। পতাকাযুক্ত গাড়িটি গতকাল চুয়াডাঙ্গার বদরগঞ্জে পৌঁছুলে ফুল দিয়ে শুধু অভিনন্দিতই করা হয়নি, বিশাল গাড়িবহর পতাকাবাহী গাড়িটি ঘিরে সম্মানের সাথে চুয়াডাঙ্গায় নেয়। গার্ড অব অনারের পর তিনি চুয়াডাঙ্গার শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিসৌধে পুষ্পমাল্য অপর্ণের মধ্যদিয়ে স্মরণ করেন জাতির শ্রেষ্ঠ সকল সন্তানদের যারা দেশের জন্য দিয়ে গেছেন প্রাণ।

জাতীয় সংসদের হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন বলেছেন, ‘বিএনপিসহ তাদের জোট সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে যে ভুল করেছে তার মাশুল তারা এখন দিচ্ছে। আগামীতে নির্বাচনে অংশ নিতে হলে তাদেরকে অবশ্যই মানুষ পোড়ানোর রাজনীতি পরিহার করতে হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় চুয়াডাঙ্গা জেলার প্রবেশদ্বার বদরগঞ্জে আয়োজিত সংবর্ধনাসভায় তিনি এ কথা বলেন। এর আগে বদরগঞ্জ বাজারে পৌঁছানোর পর চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের পক্ষে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়। এ সময় হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুনকে ফুল দিয়ে বরণ করেন- চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল আমিন ও সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ এরশাদুল কবীর।  এরপর বদরগঞ্জে বাজারে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সংবর্ধনায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন- জাতীয় সংসদের হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। তিনি বলেন, আপনারা আমাকে দু দু বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত করে যে আসনে বসিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী তারই পুরস্কার হিসেবে আমাকে ১০ম জাতীয় সংসদের হুইপ নির্বাচিত করে আপনাদের সেবা করার সুযোগ করে দিয়েছেন, আমি যেন আপনাদের সেবা করে বাকি সময়টা পার করতে পারি সেই দোয়াই করবেন। তিনি বলেন, সকলের ভালোবাসায় আজ আমি সিক্ত। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন আমি যেন বাকি জীবনটা আপনাদের সেবাই নিজেকে উৎসর্গ করতে পারি। আর চুয়াডাঙ্গার অসম্পন্ন কাজগুলো সম্পন্ন করতে পারি।

বদরগঞ্জ থেকে পতাকাবাহী গাড়িটি বিকেল সাড়ে ৫টায় চুয়াডাঙ্গা সার্কিট হাউজে পৌছায়। সেখানে তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। শুরু হয় বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিকসহ অঙ্গসংগঠনের পক্ষে ফুল দিয়ে অভিনন্দনের পালা। ফুলে ফুলে সিক্ত হন হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার। সার্কিট হাউজে জেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠনসহ জেলার বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গ হুইপকে ফুল দিয়ে বরণ করেন। এ সময় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, সুশীল সমাজসহ সর্বস্তরের মানুষের পক্ষ থেকে দেয়া হয় ফুলেল শুভেচ্ছা ও উষ্ণ সংবর্ধনা। সার্কিট হাউজে উপস্থিত ছিলেন- চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক দেলোয়ার হোসাইন, পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দামুড়হুদা উপজেলা চেয়ারম্যান আজাদুল ইসলাম আজাদ, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস, জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জীবননগর উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম মোর্তূজা, জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক খুস্তার জামিল, জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডার নুরুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শাখাওয়াত হোসেন টাইগার, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি আজিজুল হক, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. তছিরুল আলম মালিক ডিউক, জজকোটের সাবেক পিপি নূরুল হক, আলমগীর হোসেন, জেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. শামসুজ্জোহা, আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. আব্দুল মালেক, অ্যাড. রফিকুল ইসলাম রান্টু, প্রচার সম্পাদক ফেরদৌস ওয়ারা সুন্না, উপপ্রচার সম্পাদক শওকত আলী, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মাসুদউজ্জামান লিটু, আলমডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান কাদির গনু, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী মাস্টার, দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন, আব্দুল আজিজ, বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি সালাহউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নাসির জোয়ার্দ্দার টেংরা, আবুল কালাম, বঙ্গবন্ধু পরিষদ স্বাস্থ্য বিভাগ স্বাচিপ চুয়াডাঙ্গা শাখার পক্ষে ডা. মার্টিন হীরক চৌধুরী, দোকানমালিক সমিতির সভাপতি লেমন, শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের পক্ষে নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার, শ্রমিকলীগের সভাপতি আফজালুল হক, আলমডাঙ্গা পৌর আ.লীগের সভাপতি আবু মুছা, স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক সোহরাব হোসেন, মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী কোহিনুর বেগম, রাফিয়া খাতুন, আছিয়া খাতুন, যুবলীগের আহ্বায়ক আরেফিন আলম রনজু, আ.কাদের, আসমান, সুমন, আ. রশিদ. রেজাউল হক, জেহালা ইউনিয়নের হান্নান, খলিল, ছাত্রলীগের সহসভাপতি রুবাইদ বিন আজাদ সুস্তির, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক অনিক, কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশিক ইকবাল স্বপন, সাধারণ সম্পাদক তানিম হাসান তারেক, পাভেল, শাহাবুল, রাজু, রাসেল, খালিদ, হিমেলসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ, কৃষকলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। সবশেষে হুইপ চুয়াডাঙ্গা জেলার শহীদ স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এর আগে সকালে তিনি গোপালঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় অবস্থিত বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

বদরগঞ্জ/সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে চুয়াডাঙ্গা বদরগঞ্জ বাজারে জাতীয় সংসদের হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুনকে ফুলের শুভেচ্ছাসহ অভ্যর্থনা জানানো হয়। সদর উপজেলার পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী আফিসার আবুল আমিন ও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ। এরপর কুতুবপুর ইউনিয়র আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজি মজিবর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ সর্দ্দার, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা ছাত্রলীগের পক্ষে সভাপতি জুয়েল রানা, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সুস্তির, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলী আহম্মদ হাসানুজ্জামান মানিক, সবুর খান, সংকর, মিঠু, উপজেলা যুবলীগের পক্ষে যুগ্মআহ্বায়ক নিলুয়ার হোসেন, বদরগঞ্জ আলিয়ারপুর আজিজ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল মোতালেব, খাসকররা ইউনিয়নের পক্ষে চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান রুন্নু ,পদ্মবিলা ইউনিয়ন আ,লীগের পক্ষ থেকে সাবেক চেয়ারম্যান আবু তাহের বিশ্বাস, বীর মুক্তিযোদ্ধা উসমান গনি, মোমিনুল ইসলাম মেম্বার, মোছা. হাসিনা মেম্বার, কুতুবপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রাকিবুল ইসলাম, আজাদ রহমান, আশিক রহমান, আলতাব মণ্ডল, রফিউদ্দিন, আ.মান্নান, রফিকুল ইসলাম, আতিয়ার রহমান মোল্লা, কলীম মিয়া, এলাহী মোল্লাসহ তিতুদহ, শঙ্করচন্দ্র ও পদ্মবিলা ইউনিয়নের যুবলীগ, ছাত্রলীগ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন- চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস, জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক খুস্তার জামিল, আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. আব্দুল মালেক, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক লিটু বিশ্বাস, জেলা আ.লীগের সদস্য সাখাওয়াত হোসেন টাইগার, সদর উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন ঠাণ্ডু, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হক আশা, দপ্তর সম্পাদক গোলজার হোসেন, কুতুবপুর ইউনিয়ন আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছানোয়ার হোসেন প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন স্বপন মাস্টার।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *