দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মুখোশ পরে রাম দা হাতে কয়েক যুবকের মহড়া

শান্ত দামুড়হুদাকে অশান্ত করার পাঁয়তারা : ওরা কারা ?
দামুড়হুদা প্রতিনিধি: শান্ত দামুড়হুদা আবারও অশান্ত করার অশুভ পাঁয়তারা শুরু হয়েছে। মুখোশ পরিহিত ৪-৫ জন অজ্ঞাত দুর্বৃত্ত হাতে রাম দা নিয়ে গতকাল শুক্রবার রাত ৯টার দিকে দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ডস্থ শাহিনের মোটর পার্টসের দোকানের সামনে মহড়া দিয়ে গেছে। ওই সময় শাহিনের দোকানে দুজন দারোগা বসে থাকায় কোনো অপ্রীতিকর ঘটেনি। ঘটনাটি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখার জন্য দামুড়হুদা মডেল থানার ওসির সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এলাকার শান্তিপ্রিয় মানুষ।
যুবলীগ নেতা দামুড়হুদা দশমীপাড়ার শাহিন বলেছেন, আমি দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় আমি আমার অনুসারীদের নিয়ে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগরের সাথে দেখা করার জন্য দর্শনায় যায়। দর্শনা থেকে ফিরে আমার লোকজন নিয়ে নিজ দোকানে বসে চা পান করছিলাম। এ সময় রাম দা হাতে মুখোশ পরিহিত ৪-৫ জন অজ্ঞাত যুবক বাসস্ট্যান্ড এলাকা হয়ে আমার দোকানের সামনে আসে এবং জোরে জোরে চিৎকার দিয়ে বলে এখানে কারা? তাদের হাতে রড় রাম দা দেখে দোকানে বসে থাকা দামুড়হুদা মডেল থানার দুজন দারোগা তাদের কাছে থাকা পিস্তল উচিয়ে তাদের আটকের চেষ্টা করে। পুলিশ দেখে মুখোশ পরিহিত যুবকরা বাসস্ট্যান্ডের দিকে দৌড় দেয়। এ সময় ওই দুই দারোগা তাদের পিছু ধাওয়া করলে তারা বাসস্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকা একটি মাইক্রেবাসে উঠে চুয়াডাঙ্গা অভিমুখে পালিয়ে যায়। যুবলীগ নেতা শাহিন আরও বলেছেন, মুখোশ পরে থাকায় আমি তাদের কাউকেই চিনতে পারিনি। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর সাধারণ জনগণের মধ্যে এক ধরণের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা বিরাজ করতে থাকে। কী জানি কখন কি হয়। কেউ কেউ মন্তব্য করে বলেছেন, শান্ত দামুড়হুদাকে আবারও অশান্ত করার পাঁয়তারা শুরু হয়েছে। কিন্তু ওরা কারা? আর কেনই বা মুখোশ পরে শাহিনের দোকানের সামনে এসেছিলো? এই ঘটনার ব্যাপারে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখে ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দামুড়হুদা মডেল থানার ওসির সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এলাকার শান্তিপ্রিয় মানুষ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *