দামুড়হুদায় ইটভাটার শ্রমিক সর্দ্দার আতিয়ার শ্রমিকদের লক্ষাধিক টাকা নিয়ে লাপাত্তা : চার নারীসহ ১৮ শ্রমিক বিপাকে

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার জগন্নাথপুরে ইটভাটার শ্রমিক সর্দ্দার আতিয়ার রহমান শ্রমিকদের পাওনা লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ করে লাপাত্তা হয়ে পড়ায় বিপাকে পড়েছে চার নারী শ্রমিকসহ ১৮ জন ইটভাটা শ্রমিক। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় চুয়াডাঙ্গা শহরের কেদারগঞ্জ এলকায় এক নারী শ্রমিক এই অভিযোগ করে তার নাতনি হুমাইয়ার জন্য খাবারের কথা বলে বিভিন্ন মানুষের কাছে সাহায্য প্রার্থনা করতে দেখা গেছে।
খুলনার পাইকগাছা উপজেলার চাঁদখালী গ্রামের মৃত আফসার আলীর স্ত্রী ফকি (৪৫), তার মেয়ে ময়না খাতুন (২২) এবং ময়নার মেয়ে হুমাইয়ারাসহ ১৮ জন ভাটা শ্রমিকের কাজে গত তিন মাস আগে চুয়াডাঙ্গায় আসেন। তাদেরকে ভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে আসেন একই এলাকার আতিয়ার রহমান। এরপর দামুড়হুদার জগন্নাথপুরে হাজি খোকন নামে এক ব্যক্তির ইটভাটায় কাজ করেন ১৮ শ্রমিক। এর মধ্যে ৪ নারী শ্রমিক এবং ১৪ পুরুষ। ইটভাটায় থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা ছিলো। তবে, শ্রমিক সর্দ্দার কাউকে না বলে হঠাৎ সেখান থেকে উধাও হয়ে যায়। বিপাকে পড়েন ১৮ জন শ্রমিক। বিষয়টি ইটভাটার মালিককে জানিয়েও কোনো ফল না পেয়ে তারা চুয়াডাঙ্গা রেলস্টেশনের দিকে গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। ক্ষতিগ্রস্থ ফকি অভিযোগ করে বলেন, শ্রমিক সর্দ্দার আতিয়ার রহমানের কাছে তারা সকলে মিলে ১ লাখ টাকা পাবেন। অথচ শ্রমিক সর্দ্দার টাকা না দিয়ে পালিয়ে গেছে। ভাটা মালিককে জানালেও তিনি কিছুই করেননি বলে অভিযোগ করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *