দামুড়হুদার মুন্সিপুর সীমান্তে অস্ত্র কেনা-বেচার সময় পুলিশের হানা : ওয়ান সুটারগান উদ্ধার

 

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার মুন্সিপুর সীমান্তে অস্ত্র কেনা-বেচার সময় দামুড়হুদা থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে পরিত্যক্ত অবস্থায় একটি সচল ওয়ান সুটারগান উদ্ধার করেছে। অস্ত্রব্যবসায়ীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অস্ত্র ফেলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে দামুড়হুদা থানা পুলিশ উপজেলার সীমান্তবর্তী মুন্সিপুর গ্রামের চিহিৃত অস্ত্রব্যবসায়ী ঝন্টুর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ওই অস্ত্র উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় দামুড়হুদা মডেল থানার এসআই খাইরুল ইসলাম বাদী হয়ে মুন্সিপুর মাঝপাড়ার আজির সর্দ্দারের ছেলে ঝন্টুকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন।

দামুড়হুদা মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই একরামুল হোসাইন জানান, দামুড়হুদার সীমান্ত সংলগ্ন মুন্সিপুর গ্রামের মাঝের পাড়ার আজির সর্দ্দারের ছেলে বহুল আলোচিত ঝন্টুর বাড়িতে ঝন্টু ও খোকা ধামার ছেলে ফারুক (৩০) অবৈধভাবে ভারত থেকে অস্ত্র এনে বেচা-কেনা করছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিষয়টি জানতে পেরে এসআই খাইরুল ইসলাম এবং এএসআই মাহাবুব সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে গতকাল সোমবার বিকেল ৫টার দিকে ঝন্টুর বাড়িতে অভিযান চালান। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অস্ত্রব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। তবে তাদের ফেলে যাওয়া অস্ত্রটি ঝন্টুর বসতঘর ও গোয়াল ঘরের মাঝামাঝি স্থান থেকে পুলিশ উদ্ধার করে।

দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি আবু জিহাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, মুন্সিপুরের ঝন্টু ও ফারুক পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে অস্ত্র বেচা-কেনা করে আসছে আমাদের কাছে এমন খবর থাকলেও সঠিক তথ্য প্রমানের অভাবে তাদের এতোদিন আটক করা সম্ভব হয়নি। গতকাল বিকেলে ঝন্টুর বাড়িতে অস্ত্র কেনা-বেচার খবর পেয়ে আমরা অভিযান পরিচালনা করি। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ধুনন্ধর ঝন্টু ও ফারুকসহ অস্ত্র বিক্রির সাথে জড়িতরা একটি ব্যাগ ফেলে পালিয়ে যায়। আসামি ঝন্টুসহ অস্ত্র বেচাকেনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করতে পুলিশি অভিযান অব্যহত আছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

 

 

 

 

 

 

Leave a comment

Your email address will not be published.