দামুড়হুদার নতিপোতা ইউপির ৭ নং ওয়ার্ড সদস্যের বাড়ির গেটে দুটি শক্তিশালী বোমা বিস্ফোরণ

 

দামুড়হুদা প্রতিনিধি : দামুড়হুদার নতিপোতা ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের সদস্য সেলিম হোসেনের বাড়ির গেটে দুটি শক্তিশালী বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার দিনগত রাত দেড়টার দিকে ওই বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বিস্ফোরিত বোমার আলামত উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় সেলিম মেম্বার থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার নতিপোতা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য বেড়বাড়ি গ্রামের মৃত মইরদ্দির ছেলে সেলিম হোসেনের বাড়ির গেটে বুধবার দিনগত রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে দুর্বৃত্তরা দুটি শক্তিশালী বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। বোমার বিকট শব্দে গোটা এলাকা প্রকম্পিত হয়ে ওঠে। খবর পেয়ে চারুলিয়া ক্যাম্প ইনচার্জ এএসআই জোনাব আলী ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং বিস্ফোরিত বোমা দুটির আলামত উদ্ধার করেন। তবে এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কেউ আটক হয়নি।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী সেলিম মেম্বার জানান, অন্যান্য দিনের ন্যায় বুধবার রাতে ঘুমিয়ে পড়ি। রাত দেড়টার দিকে আমার নিজ বাড়ির গেটের সামনে পরপর দুটি বোমা বিস্ফোরণের শব্দ হয়। তড়িঘড়ি ঘুম থেকে জেগে ওঠি এবং বিষয়টি থানার ওসি সাহেবকে জানায়। এর কিছুক্ষন পর চারুলিয়া ক্যাম্প ইনচার্জ ঘটনাস্থলে আসেন এবং বিস্ফোরিত বোমা দুটির আলামত উদ্ধার করেন। তিনি আরো বলেন, প্রতিবেশী মৃত শাহাদতের ছেলে সুরাপ, সুবারত, কুবারত, মুরাদ, কুরবানদের সাথে জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে পূর্ব শত্রুতা রয়েছে। আমার ধারণা ওরাই আমার বাড়িতে ওই বোমা দুটি মেরেছ। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার দামুড়হুদা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। এ বিষয়ে চারুলিয়া ক্যাম্প ইনচার্জ এএসআই জোনাব আলী জানান, রাত ১টার দিকে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে বোয়ালমারীতে ডিউটি করছিলাম। কিছুক্ষণ পরে বিকট শব্দে পরপর ২টি বোমা বিস্ফোরণে শব্দ শুনি। কোথায় বোমা ফাটলো তা সন্ধান করতে থাকি। মিনিট পাঁচেক পর বিষয়টি ওসি সাহেবের মাধ্যমে জানতে পেরে ঘটনাস্থলে পৌছায় এবং বিস্ফোরিত বোমার কিছু আলামত উদ্ধার করি। তবে বোমা ২টি বাড়ির কোথায় নিক্ষেপ করা হয়েছে তা সঠিকভাবে জানা যায়নি। একই এলাকার সাবেক মেম্বার লিয়াকত আলী বলেন, সেলিম মেম্বারদের সাথে যে পরিবারের মধ্যে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছে তাদের ফাসাতেই সেলিশ মেম্বার নিজেদের লোক দিয়ে ওই বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে মিথ্যা নাটক সাজিয়েছে। নিরপেক্ষ তদন্ত করলে ঘটনার প্রকৃত রহস্য বেরিয়ে আসবে। দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি কামরুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে এর সত্যতা পাওয়া গেছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করতে পুলিশি জাল বিস্তার করা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *