দামুড়হুদার দেউলী গ্রামের অপহৃত গরু ব্যবসায়ী আনোয়ারের পরিবারের সাথে অপহরণকারীদের সাথে মোবাইলফোনে কথোপকথন

 

হয় শাজাহানকে হাজির করো নয়তো ৬ লাখ টাকা দাও

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দামুড়হুদার দেউলী গ্রাম থেকে অপহৃত গরুব্যবসায়ী আনোয়ারের ভাই ছানোয়ারের সাথে মোবাইলফোনে অপহরণকারী ভারতীয় গরুব্যাপারী মিন্টুর কথা হয়েছে। কথা হয়েছে অপহরণের শিকার তার ভাই আনোয়ারের সাথেও। হয় শাজাহানকে হাজির করে দাও নয়তো ৬ লাখ টাকা দিয়ে দাও, তোমার ভাইকে ছেড়ে দেয়া হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে মোবাইলফোনে সাফ একথা জানিয়ে দিয়েছে ভারতীয় গরুব্যাপারী মিন্টু। এ দিকে আনোয়ার অপহরণের পর থেকে শাজাহান গা ঢাকা দিয়েছে। তাকে তন্নতন্ন করে খুঁজেও কোথাও পাওয়া যাচ্ছে না। ছানোয়ার জানান, আনোয়ারকে অপহরণ করে চাকুলিয়া-হুদাপাড়া সীমান্ত দিয়ে পার করে ভারতের চাপড়া থানার গোয়ালডাঙ্গা গ্রামে আটকে রাখা হয়েছে। শাজাহানের ইন্ধনেই তারা আমার ভাইকে অপহরণ করেছে। কারণ শাজাহান একজন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। তার বাড়িতে সন্ত্রাসীরা আসা যাওয়া করে এবং মাঝে মধ্যে থাকেও। ছানোয়ার বাদী হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শাজাহান ও তার ভাই আলী জানের নামে থানায় অভিযোগ করেছেন।

উল্লেখ্য, দামুড়হুদার দেউলী গ্রামের মৃত ওদুদ ফকিরের ছেলে শাজাহান আলী ভারতীয় এক গরুব্যাপারীর নিকট থেকে বাকিতে ৬ লাখ টাকার গরু কিনে ওই টাকা পরিশোধ না করে টালবাহানা শুরু করে। টাকা না পেয়ে গত মঙ্গলবার রাতে ভারতীয় ওই গরুব্যাপারীর ১০/১২ জনের একটি দল দেউলী গ্রামে হানা দিয়ে আজিম উদ্দিনের ছেলে আনোয়ারকে অপহরণ করে ভারতে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি আহসান হাবীব জানান, অপহৃতের ভাই ছানোয়ার হোসেন বাদী হয়ে শাজাহান ও তার ভাই আলীজানকে অভিযুক্ত করে থানায় অভিযোগ করেছেন। শাজাহানকে আটকের চেষ্টা চলছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *