দামুড়হুদার গোবিন্দপুরে ডাকাতি মামলায় যুবলীগ ক্যাডার চিৎলার স্বপনসহ দুজন আটক

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দামুড়হুদার গোবিন্দপুরে বোমা হামলাসহ চ্যাঞ্চল্যকর ডাকাতির ঘটনায় জড়িত সন্দেহে চিৎলা গ্রামের শহিদুল মালিথার ছেলে যুবলীগ ক্যাডার স্বপন (২৭) ও একই গ্রামের নূহু মালিথার ছেলে হামিদুলকে আটক করেছে থানা পুলিশ। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দামুড়হুদা থানা পুলিশ তাদেরকে আটক করে। এ বিষয়ে ওসি (তদন্ত) ফকির আজিজুর রহমান জানান, আটক দুজনের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা গোবিন্দপুরে ডাকাতির ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে। তবে তদন্তের স্বার্থে তা এখনই প্রকাশ করা সম্ভব নয়। আজ মঙ্গলবার তাদেরকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ২৮ জানুয়ারি আনুমানিক রাত পৌনে ১২টার দিকে ১২/১৪ জন মুখোশ পরিহিত অস্ত্রধারী দুর্বৃত্তরা উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামে তাণ্ডব চালিয়ে এক চা দোকানিসহ ১০ জনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এরই এক পর্যায়ে দুর্বৃত্তরা গ্রামবাসীর প্রতিরোধের মুখে পড়ে পরপর ৬টি শক্তিশালী বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নির্বিঘ্নে পালিয়ে যায়। বোমার আঘাতে বাবুল আক্তার তার স্ত্রী হোসনে আরা ডলি, ছেলে শাওন, মনিরুদ্দিনের ছেলে বকুল, মৃত বরকত মণ্ডলের ছেলে ইসরাফিল ও একই গ্রামের লাল মোহাম্মদের ছেলে হারুন অর রশিদ গুরুতর জখম হন। পরদিন হারুন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ১২/১৪ জনের নামে দামুড়হুদা মডেল থানায় একটি ডাকাতি মামলা দায়ের করেন। থানা পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের নানা চেষ্টা চালিয়ে এ পর্যন্ত কাউকে আটক করতে না পারলেও প্রায় এক মাসের মাথায় গতকাল সোমবার রাতে ওই ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে এ দুজনকে আটক করে।

Leave a comment

Your email address will not be published.