দামুড়হুদার কানাইডাঙ্গায় সাবেক মেম্বারের বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা?

দর্শনা অফিস/ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি: সন্ধ্যারাতে দামুড়হুদার কানাইডাঙ্গার গ্রামের সাবে ইউপি মেম্বারের বাড়িতে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়েছে। গ্রামবাসী সন্ত্রাসীদের প্রতিরোধ করেছে। দু’পক্ষের মধ্যে বোমা বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির অভিযোগ উঠলেও হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। হামলার নেপথ্যে চাঁদা দাবির অভিযোগ করা হলেও রহস্য উন্মোচনে পুলিশি অভিযান চলছে।

জানা গেছে, দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের কানাইডাঙ্গা স্কুলপাড়ার মিনাজ উদ্দিনের ছেলে সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল হকের কাছে বিভিন্ন ভাবে বেশ কয়েকদিন ধরে দেড় লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছে একটি চাঁদাবাজচক্র। গতকাল মঙ্গলবার রাত ন’টার দিকে ১৫/১৬ জনের সশস্ত্র সন্ত্রাসীচক্র হামলা চালায় আব্দুল হকের বাড়িতে। অভিযোগে বলা হয়েছে, সন্ত্রাসীরা বাড়ির পাঁচিল টপকে ভেতরে ঢোকে। বাড়ির ছাদে উঠে ছাদের দরজা ভাঙার চেষ্টা করলে টের পেয়ে যায় গৃহকর্তা। এ সময় আব্দুল হাই ও পরিবারের সদস্যরা চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা ছুটে আছে। আব্দুল হাই, তার ভাই লাইসেন্সধারী বন্দুক দিয়ে ৭/৮ রাউন্ড ফাকা গুলিবর্ষণসহ প্রতিবেশীদের প্রতিরোধের মুখে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। সন্ত্রাসীরা পালানার সময় তিনটি গুলিবর্ষণ ও একটি শক্তিশালী বোমার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটিয়েছে বলেও জানা গেছে। তবে দু’পক্ষর গুলিবর্ষণ ও বোমা বিস্ফোরণে হতাহতের কোনো ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। সন্ধ্যারাতে সন্ত্রাসী হানা, গুলি ও বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় গোটা এলাকা জুড়ে বিরাজ করছে চরম আতঙ্ক। এদিকে কার্পাসডাঙ্গা আইসি ইনচার্জ এসআই রবিউল ইসলাম বলেছেন, খবর পেয়ে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছুলেও সন্ত্রাসী হানা ও চাঁদাবাজির কথা শোনা যায়নি, এমনকি বোঝাও যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে আতঙ্কেই আব্দুল হাই এবং তার ভাই লাইসেন্সধারী বন্ধুক দিয়ে ফাকা গুলিবর্ষণ করেছেন। তবে ঘটনাটি ঘতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.