দর্শনা বাসস্ট্যান্ড ও ধান্যঘরায় পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনা : আহত ৫ করিমন কাড়লো পথচারী শিশুর প্রাণ

দর্শনা অফিস/ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি: দামুড়হুদার দর্শনা বাসস্ট্যান্ড ও ধান্যঘরায় পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটেছে। এতে করুণ মৃত্যু হয়েছে ধান্যঘরা গ্রামের ৬ বছরের শিশু মামুনের। সড়ক পার হওয়ার সময় করিমন তাকে চাকায় পিষ্ট করে। এ ছাড়া পৃথক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে ৫ জন।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দামুড়হুদার কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের ধান্যঘরা দুলতলাপাড়ার খালিদ হোসেনের ৬ বছর বয়সী ছেলে মামুন বাড়ির সামনের সড়ক পার হচ্ছিলো। এ সময় কার্পাসডাঙ্গা থেকে দর্শনায় যাচ্ছিলো যাত্রীভর্তি করিমন। করিমন চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সজোরে ধাক্কা দিলে ছিটকে পড়ে মামুন। শিশু মামুনের মাথায় প্রচণ্ড আঘাতে রক্তক্ষরণ হতে থাকে। স্থানীয় লোকজন মুমূর্ষু অবস্থায় মামুনকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য দ্রুত চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে দুর্গাপুরেই মারা যায় মামুন। এ ঘটনায় যেমন থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি মামুনের পরিবারের পক্ষ থেকে, তেমনি যাত্রীভর্তি করিমন ও ধান্যঘরা গ্রামের করিমনচালক আজগার আলীকে আটক করতে পারেনি কেউ। গতকালই বিকেলে বেদনাবিধুর পরিবেশে স্থানীয় গোরস্তানে মামুনের দাফন সম্পন্ন হয়।

অপরদিকে, গতকাল ভোরে দর্শনা বাসস্ট্যান্ড ট্রাফিক আইল্যান্ডের সামনে মোটরসাইকেল-আলমসাধুর মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ভোর সাড়ে ৫টার দিকে দামুড়হুদার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের কানাইডাঙ্গা দক্ষিণপাড়ার জান বক্স মণ্ডলের ছেলে সামাদ (৪৩), জান হবির মণ্ডলের ছেলে হোসেন আলী (৩৭) ও আলী হোসেনের ছেলে আসানুল (২৮) আলমসাধুযোগে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়নের দোস্ত গ্রামে সড়ক নির্মাণকাজে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে দর্শনা বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছুলে একটি মোটরসাইকেলের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় আলমসাধুর। এতে সড়ক নির্মাণশ্রমিক সামাদ, হোসেন, আসানুল দর্শনা পৌর শহরের পরাণপুরের জলিল উদ্দিন কেমিস্টের ছেলে মোটরসাইকেল চালক আরএক্স মেনন (২২) ও একই মহল্লার লাল মোহাম্মদ লাল্টুর ছেলে সোহান (২১) আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। দর্শনা আইসি পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মেননের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *