দর্শনায় শিবির কর্মী রফিকুল ইসলাম হত্যা মামলায় ৬ আসামির আত্মসমর্পণ : জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

স্টাফ রিপোর্টার : চুয়াডাঙ্গার দর্শনায় শিবির কর্মী কলেজ ছাত্র রফিকুল ইসলাম (২২) হত্যা মামলায় ৬ জামায়াত কর্মীকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বুধবার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করলে আদালতের বিচারক মুস্তাফিজুর রহমান জামিন না মঞ্জুর করে জেলা কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
মামলার আসামী হলেন আলমডাঙ্গার বোয়ালিয়া গ্রামের মৃত মুছার ছেলে বিল্লাল হোসেন ও আব্দুল বারেকের ছেলে আনোয়ার হোসেন, কেশবপুর গ্রামের মৃত রমজানের ছেলে জহুরুল ইসলাম ও মৃত শাহাদত হোসেনের ছেলে জহির উদ্দিন, আলীয়াট নগরের মওলা বকশের ছেলে আমজাদ হোসেন এবং খাদিমপুর গ্রামের আজিজুল মন্ডলের ছেলে মনোয়ার হোসেন। এই ৬ জনই চার্জশিটভুক্ত আসামি।
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, ২০১৩ সালের ১০ অক্টোবর বেলা ৩টা দিকে দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনায় জামায়াত ইসলাম একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। ওই বিক্ষোভ মিছিলে এসএএফ কনস্টেবল কামরুল ইসলাম দু’রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করেন। এ সময় চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের অর্থনীতি বিভাগের ২য় বর্ষ অনার্সের ছাত্র সদর উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থলে মারা যান। এ ঘটনায় দামুড়হুদা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বিএম আফজাল হোসেন ২৮৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৩৫০ জনের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় দীর্ঘ ৩ বছর তদন্ত শেষে উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফেরদৌস ওয়াহিদ ২৯৩ জনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। আগামী ২৫ মার্চ এই মামলার পরবর্তী দিন ধার্য রয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা জেলা জজ আদালতের ও এই ৬ আসামির আইনজীবী মাসুদ পারভেজ রাসেল জানান, এই মামলায় বেশিরভাগ আসামিই আদালত থেকে জামিন নিয়েছেন। এখনও বাদবাকি আসামি জামিনের বাইরে থাকায় মামলাটি বিচারে প্রস্তুত হতে বিলম্ব হচ্ছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *