দর্শনায় দেড়কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ হচ্ছে বাস-টার্মিনাল

 

দর্শনা অফিস: দর্শনাবাসীর একাধিক প্রাণের দাবির মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য দর্শনায় বাস-টার্মিনাল নির্মাণ। অবশেষে দর্শনাবাসীরা আরও একটি কাঙ্ক্ষিত স্বপ্ন পূরণ হতে যাচ্ছে। দর্শনা বাসস্ট্যান্ডে টার্মিনাল নির্মাণের অনুমতি মিলেছে। এরই মধ্যে টার্মিনালের নির্ধারিত জমি থেকে অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়া হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের প্রশাসক, দর্শনার কৃতিসন্তান মাহফুজুর রহমান মনজুসহ নেতৃবৃন্দ ও কর্মকর্তারা। চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদ প্রশাসক, দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক দর্শনার কৃতি সন্তান মাহফুজুর রহমান মঞ্জু উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখেছেন। ধারাবাহিকভাবে এলাকার উন্নয়ন কার্যক্রম তরান্বিত করছেন। এবার দর্শনাবাসির দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন পূরণে আরো এক ধাপ এগিয়ে নিলেন তিনি। অচিরেই দর্শনা রেলবাজার সড়কের যান-জট মুক্ত হচ্ছে। দর্শনাকে উপজেলায় উন্নিত করণ, স্থলবন্দর বাস্তবায়ন ও বাস-টার্মিনাল নির্মান সহ বেশ কয়েকটি স্বপ্ন দর্শনাবাসির। এ স্বপ্ন পূরণে ভূমিকা নিয়েছেন মাহফুজুর রহমান মনজু। মাসচারেক আগে তিনি দর্শনায় বাস টার্মিনাল নির্মাণসহ বেশ কয়েকটি উন্নয়নমূলক কাজের অনুমোদনের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ১০ জুন স্থানীয় সরকার বিভাগে অনুষ্ঠিত সভায় সারাদেশে ১০টি স্থাপনা নির্মাণের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। সিদ্ধান্ত সমূহের মধ্যে রয়েছে, চুয়াডাঙ্গা-জীবননগর মহাসড়কের দর্শনা বাসস্ট্যান্ডের চৌরাস্তা মোড়ের জেলা পরিষদের নিজস্ব ৪৫০ ফুট দৈর্ঘ ও ৮৫ ফুট প্রস্ত জমিতে বাস টার্মিনাল স্থাপনের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব জুবাইদা নাসরীন স্বাক্ষরিত পত্রে এ সিদ্ধান্তের কথা জানা গেছে। সে মোতাবেক টার্মিনাল নির্মানের পুরো প্রস্তুতিই গ্রহণ করেছে জেলা পরিষদ। জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে টার্মিনালের নির্ধারিত জমি থেকে অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার ব্যবস্থা করেছে। আগামীকাল মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে টার্মিনালে ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে মাটি ভরাট ও বাউন্ডারী পাঁচিল নির্মাণ কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে। গতকাল সোমবার স্থানীয় নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে টার্মিনাল এলাকা পরিদর্শন করেছেন মাহফুজুর রহমান মঞ্জু। এ সময় সাথে ছিলেন, আ.লীগ নেতা আমির হোসেন, ইদ্রিস আলী, আতিয়ার রহমান হাবু, আ. বারী, ওমর আলী, দর্শনা আখচাষি কল্যান সংস্থার সভাপতি আ. হান্নান, ব্যবসায়ী নেতা কামাল উদ্দিন আহম্মেদ সান্টু, পৌর কাউন্সিলর সাহিকুল ইসলাম অপু, সেন্টু, যুবলীগ নেতা আক্তারুল ইসলাম, জান্নাতুল বাকী প্রমুখ।।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *