তীব্রতাপমাত্রা মৃদু হলেও চুয়াডাঙ্গায় বেড়েছে অস্বস্তি

 

সামান্য ঝড়ে বিদ্যুত সরবরাহ ব্যবস্থায় নাজুক অবস্থা : দেয়ালচাপায় আহত ১

স্টাফ রিপোর্টার: তীব্র তাপপ্রবাহ মৃদু হয়ে এলেও চুয়াডাঙ্গা স্বস্তি মেলেনি। বরঞ্চ ভ্যাপসা গরমে অস্বস্তির মাত্রা বেড়েছে। আর এর মাঝে বিদ্যুতের ভেলকিবাজি বিষিয়ে তুলছে। গতরাতে চুয়াডাঙ্গায় বিদ্যুত সরবরাহ ব্যবস্থার নাজুক চিত্র ফুটে ওঠে। অপরদিকে ঝড়ের সময় দেয়াল ধসে চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের ডিহিকৃষ্ণপুরের এক যুবক আহত হয়েছে। আহত যুবক রাজ্জাককে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতরাতে পৌনে ১২টার দিকে বৃষ্টিহীন ঝড়ের সময় নির্মাণাধীন ঘরের দেয়াল ধসে রাজ্জাকের (২০) ওপর পড়ে। সে মোশারফ হোসেনের ছেলে।

বাতাস উঠতে না উঠতেই চুয়াডাঙ্গায় বিদ্যুত সরবরাহ ব্যবস্থা ভেঙে পড়ে। এবারও সে চিত্রের ন্যূনতম পরিবর্তন হয়নি। গতরাত পৌনে ১২টার দিকে ঝড়ো বাতাস উঠতে না উঠতে বিদ্যুত সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। সাড়ে ১২টার দিকে চুয়াডাঙ্গা বিদ্যুত বিতরণ কেন্দ্রের অধিকাংশ ফিডারে বিদ্যুত সরবরাহ পুনরায় চালু করা হলেও ত্রুটির কারণে বিজিবি ফিডারে বিদ্যুত সরবরাহ অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়ে। তা অবশ্য কাটিয়ে উঠতে না উঠতে সোয়া ১টার দিকে আবারও বিদ্যুত সরবরাহ ব্যবস্থায় বিপর্যয় নেমে আসে। অবশ্য আনুমানিক ১৫ মিনিটের মাথায় বড়বাজারসহ ফিডারগুলোতে পুনরায় বিদ্যুত সরবরাহ চালু হয়।

আবহাওয়া অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো রাজশাহীতে ৪০ দশমিক ২ এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় শ্রীমঙ্গলে ২০ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চুয়াডাঙ্গায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ৩৯ এবং সর্বনিম্ন ২৫ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলঘ্নএলাকায় অবস্থান করছে। স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। ফলে কুমিল্লা ও নোয়খালী অঞ্চলসহ রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। এছাড়া ঢাকা, ফরিদপুর, রাঙ্গামাটি, চাঁদপুর, মাইজদীকোটর্, রাজশাহী ও ঈশ্বরদী অঞ্চলসহ খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং অব্যাহত থাকতে পারে।গতকাল ফেনী, শ্রীমঙ্গলসহ বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *