ঢাকায় সমাবেশ দিয়ে আন্দোলন শুরু বিএনপির

 

স্টাফ রিপোর্টার: নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের দাবিতে জনসম্পৃক্ততাবৃদ্ধি করতে ১৯ আগস্ট ঢাকায় সমাবেশ করার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। গতকাল রোববাররাতে চেয়ারপারসনের গুলশান রাজনৈতিক কার্যালয়ে স্থায়ী কমিটির সদস্যদেরসাথে বৈঠক করে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বৈঠকসূত্রে জানা যায়, আগামী ১৯ আগস্ট ঢাকায় সমাবেশ করবে বিএনপি। আর সেই সমাবেশথেকেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারকে সংলাপের শেষ আল্টিমেটাম দিবেন বিএনপিচেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এছাড়া গাজায় ফিলিস্তিনির ওপর ইসরাইলি হামলারবিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে ১৬ আগস্ট সারাদেশে মৌন মিছিল পালনের সিদ্ধান্তগ্রহণ করেছে দলটি।সূত্র আরো জানায়, আওয়ামী লীগ যদি সেই সংলাপেরআহ্বানে সাড়া না দেয় তাহলে রাজপথে আন্দোলনের বিষয়ে আর কোনো ছাড় দেয়া হবে নাবলেও হুশিয়ারি করে দেয়া হয়েছে।বিএনপি মনে করে যেহেতু এই সরকারজনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়নি। সেহেতু একটি অবাধ সুষ্ঠু ওগ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবিতে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে কেবল বিএনপি বা ২০দলীয় জোট নয়, দেশের জনগণও শরিক হবে।

বৈঠকের আরেকটি সূত্র জানায়, বিএনপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ১লা সেপ্টেম্বর। আর ওই দিন দলেরপ্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের কবরে ফুলেল শ্রদ্ধাঞ্জলি ওফাতিহা পাঠ করা হবে। শিগগিরই নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থা আদায়ের দাবি, সম্প্রচার নীতিমালা বাতিলসহ ক্ষমতাসীন সরকারের সকল প্রকার বিচার বহির্ভূতহত্যা ও গুমের বিরুদ্ধে রাজপথে প্রতিবাদ জানাবে বিএনপি। এমনকি কোরবানি ঈদেরআগে খালেদা জিয়ার একাধিক জেলা সফরেরে যেতে পারে বলেও জানানো হয়েছে।

এসময়বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বিএনপি স্থায়ীকমিটির সদস্য ড.আর এ গনি, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, এম কে আনোয়ার, তরিকুলইসলাম, লে. জে. (অব) মাহবুবুর রহমান, ব্রি. জে. (অব) আ স ম হান্নান শাহ, বেগম সারোওয়ারী রহমান, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার রফিকুলইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, ড.আব্দুলমঈন খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.